না, আমাকে স্পর্শ করো না-আমার অস্তিত্বে হাত দিও না
আমার চৌহদ্দির বাইরে অবস্হান করো
তোমার ওই অশ্রুভেজা চোখ আমার আবেগের খাতায়
আর নাড়া দিবে না ।
আমার অলিন্দে সিঁড়ি বেয়ে উঠবে না আর কোনো অনাগত
ভবিষ্যৎ কিংবা স্বহস্তে উপড়ে ফেলা স্সৃতিগুলো
ছিড়ে কাঁথার স্বপ্নবিলাসি-বাসর।

জানি এবং মানছি তোমাকে ছাড়া আমার জীবন
আজো অর্থহীন-বুভুক্ষ পৃথিবী।
তবু
তুমি আমাকে স্পর্শ করো না, আমার অস্তিত্বের হাত দিও না
কারণ, আজ অবধি তুমি কখনো আমাকে অনুভব করোনি।

তোমার প্রয়োজনটুকুতে তুমি হাঁটলে, গাইলে স্বপ্ন দেখালে
আর স্বপ্ন দেখালে আমাকে।
কখনো, কখনো এবং কখনো-ই জানতে চাওনি আমার প্রয়োজনটুকু।

আমার বিশ্বাসটুকু কোথায় ন্যস্ত হয়ে শুয়ে আছে
আমার স্সৃতিগুলো তোমার মানচিএ থেকে উপড়ে ফেলেছি
আমার মুহুর্তগুলো এখন অন্ধকারে গড়াগড়ি খেয়ে কাঁদছে ।
না, আমি আর কোনো নতুন অংক শিখতে চাই না
আমি তোমার মানচিএ থেকে স্বেচ্ছায় নির্বাসন চাই
আমি আমার একচিলতে জীবনের অবকাশ চাই।।