কখন জানি কোন অচলায়তনে হয়েছিলে নষ্ট
জীবনের সব সুখ কে বিসর্জিত করে
অবশেষে হারিয়েছিলে নিজেকে।

কালের অচলায়তনের বন্দী ফান্দে,
রন্ধ্রে রন্ধ্রে প্রবাহিত রক্ত কণিকা,
উত্তাল তরঙ্গিত টগবগ ফুটন্ত,
অথবা যন্ত্র মানবের মত এগিয়ে চলা,
কিছুই মনে নেই তার।
আছে শুধু একটা কালজয়ী কীর্তি
নষ্ট সবি নষ্ট
কলঙ্কিত কষ্ট।

কষ্ট তুমি কি?
উচ্চাশার ফাঁদে বলিপ্রাপ্ত
নাকি মুক্ত বিহঙ্গের মত
কেন? তুমি কষ্ট?
তোমার মনটা কেন নষ্ট?
পথের পানে দেখা হলে
জীবনের প্রভাত বেলাই কাঁদাও তুমি।

তুমি কাঁদ এবং কাঁদাও
কেন? তোমার জীবনে কিসের এত ব্যথা?
যার অনল স্পিরিটে জ্বালাও এবং জ্বল।

ভুলে যাও সকল হিংসা, বিদ্বেষ, জ্বালা যন্ত্রণা
আর জীবনের ইতিকথা।

তোমার এই কলঙ্কিত জীবনে
জড়াইও না মোদের
আমাদের থাকতে দাও আমাদের মত শান্তি
আমাদের স্বর্গ নীড়ে।

কষ্ট!
তুমি জ্বালাও! তোমার
কলঙ্কিত জীবনকেই।