মরুর বুকে এক পশলা নির্ভরতার বৃষ্টি
স্মৃতি ভেবে মন ভিজে যায়,
সেই থেকে শুরু ইচ্ছেদের উড়া-উড়ি।
কতো ঝড়-ঝাপটা, রোদ-বৃষ্টি মাথায়,
খাঁচাভাঙ্গা পাখির মতো প্রাণপণে ছুট,
ঘুটঘুটে অন্ধকারে দুঃস্বপ্নটা যমপুরিতে আটকে আছে-
এদিকে পিপাসার বুকে কাঠিন্যের দৌরাত্ম্য বাড়ে।
খিটখিটা কাঁপা কাঁপা দীর্ঘ নিঃশ্বাসে
চিন্তার খড়গ আস্তেকরে নেমে আসে মাথার কাছে।
আকাশের নীল ছুঁয়ে অঝোরে বৃষ্টি নামে
অতীতের স্মৃতিগুলো কেন এতো বেশি মনে পড়ে?
আজ যা হচ্ছে কাল তা অতীত
নিয়তির বেড়াজালে সবি সঠিক।

আজ আমি একা বৃষ্টিতে ভিজি
বৃষ্টির শব্দও শুনি একা একা,
বৃষ্টি কখনোই তোমায় আর ছুঁতে পারবে না।

আকাশের উপর থেকে কি বৃষ্টি দেখা যায়?
অপেক্ষায় থেকো, আমি আসবো-
বৃষ্টি ভেজা কদম ফুল নিয়ে।

কিন্তু আমার মনের ঘরে কিছুতেই থামতে-
চাইছে না মেঘভুজঙ্গের তাণ্ডবনৃত্য।