রাস্তার পাশে শুয়ে আছে তিনজন মানুষ
একটি লোক, একটি মহিলা, একটি বাচ্চা মেয়ে,
একটি পরিবার।
চারিদিকে শীত ও কুয়াশা, আকাশ মেঘযুক্ত তারাহীন।
তাদের চোখও তারাহীন, নিস্পল, নিঃস্পন্দন।
তাদের গায়ে একটি জরাজীর্ণ কাঁথা,
যার ভেতর দিয়ে আকাশের একাংশ দেখা যায়।
তারা শুয়ে আছে খুব কাছাকাছি,
শীতের প্রকোপ থেকে কিছুটাও যেন বাঁচা যায়।
বাচ্চা মেয়েটা কাঁপছে শীতে ঠকঠক করে,
ওর বাবার চিন্তা এক টুকরো কাপড় কোথায় পাওয়া যায়,
এখন তাদের আকাঙ্ক্ষা সীমাবদ্ধ একমুঠো উষ্ণতায়।
তাদের চোখে নেই কোনো স্বপ্ন,
বাচ্চা মেয়েটাও মেনে নিয়েছে নিজের ভাগ্য,
এখানে স্বপ্ন দেখাও পাপ!