অদ্ভূত স্মার্টনেস!

আমি সংখ্যা

আরাফাত ইসলাম
  • ১৭
  • ৬৩
বহু গ্রন্থ প্রণেতা ঢাকা সিটি কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক খালেকুজ্জামান স্যার এক লেকচারে স্মার্টনেশ এর সংঙ্গা দিয়েছিলেন, “পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে তাল মিলিয়ে চলার যোগ্যতা।”
বর্তমানে স্মার্ট এর সংঙ্গা প্রদানে আমরা সম্ভবত একটু বেশিই অগ্রসর হয়ে গিয়েছি যার ফলে পুরুষদের প্যান্টগুলো কোমর থেকে এতটাই নিচে নেমে গিয়েছে যে, পশ্চাৎ এর যে অংশে মাংস দ্বিখন্ডিত হয়েছে তার ভাঁজ ও দৃষ্টিগোচর হয়, ছি! এবার নিচ থেকে একটু উপরের দিকে তাকালেই বুঝা যায় পুরুষদের জামার উপরের অংশগুলো মা-বোনদের ব্লাউজ এর সদৃশ্য হওয়া শুরু করেছে। কেউ কেউ এ পর্যন্ততেই ক্ষ্যান্ত হয়নি কানে দুল আর হাতে বালাও দিচ্ছে, অদ্ভূত! ব্যবস্থা থাকলে হয়তো লিঙ্গান্তর এর সুযোগটাও ছাড়তো না।
পাঠিকাগণ হয়তো এ পর্যন্ত পড়ার পর হাসতে হাসতে একে অপরের উপর গড়িয়ে পড়ছেন। তবে তাদের এ ব্যাপারটি অবগত করতে চাই, আপনাদের স্ব-জাতীদের মধ্যেও এ বাতিক কিছুটা পড়েছে। বলতে লজ্জা হয়! আপনারা ওড়না হিসেবে এমন কাপড় ব্যবহার করেন যে তার ভিতর হতে জামার অংশ বা জামা হিসেবে এমন কাপড় করেন যা থেকে ভিতরের অংশ স্পষ্ট দৃষ্টিগোচর হয়, আবার এক শ্রেণী রয়েছে যারা এমন জামা-কাপড় পরিধান করেন যা বাইরে থেকে দেখে-দেখেই যে কেউ দর্জির মাপ ঠিক ঠিক বলে দিতে পারবে, এমনকি যারা আধুনিক বোরখা পরিধান করেন তারাও হয়তো এর ব্যতিক্রমটি চান না, অদ্ভূত! তবে এভাবে চলার জন্য দৃঢ় সংকল্প বদ্ধ হলে কিন্তু আইন দ্বারা ইভটিজিং রোধ সম্ভব হবে না।
এপর্যন্ত পড়েই হয়তো অনেকে আমার দিকে জামার হাতা গুটিয়ে কিংবা কোমর বেঁধে তেড়ে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। কেউ কেউ এতোক্ষণ মুখ বাঁকিয়ে গোঁড়া, কনজার ভেটিব, ন্যারো মাইন্ডেড বলতেও ছাড়েননি। তাদের একটি কথা অবশ্যই দুঃখের সাথে স্মরণ করাতে চাই,“আমাদের একটা নিজস্ব সংস্কৃতি আছে!”
“আসলেই কি এটা স্মার্টনেস?”
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
ঘাস ফুল খুব ভাল লিখেছেন । আরাফাত ভাই ধন্যবাদ।
তানি হক দারুন একটা মেসেজ আছে আপনার লিখাটি তে ... প্রতিটি মানুষের ই উচিত শালীনতা বজায় রেখে চলা সে ছেলে হোক আর মেয়ে হোক ... এবং যে কোন ধর্মেরই হোক । আর অবশ্যই আমাদের দেশীয় কালচার আমাদের গর্ব ...আমরা যতই ফ্যাশনাবল হইনা কেন ।। আমাদের পরিচয় আমাদের দেশীয় অনুভূতিতেই বেঁচে থাকে ।। আপনাকে ধন্যবাদ আরাফাত ভাই । ও শুভেচ্ছা রইলো ।। এবং রোদের ছায়া আপুর সাথে একমত হয়ে বলতে চাই ... আপনার কবিতা পাবো সেই অপেক্ষাতে রইলাম । ভালো থাকুন
আরাফাত ইসলাম খুব সুন্দর একটা মন্তব্য পেলাম আপনার কাছে, তানি হক আপু !“আমাদের একটা নিজস্ব সংস্কৃতি আছে!” -এই মুল্যবোধের সাথে একমত হওয়াতে আপনাকে ধন্যবাদ।
রোদের ছায়া ভালো লাগলো আপনার রম্য ঢঙ্গে লেখা বাস্তব কথাগুলো ।তবে এখানে যেহেতু গল্প ও কবিতা দিয়েই লেখার নাম যাচাই করা হয় তাই এরকম লেখা এখানে আসলে সথক মুল্যয়ন পাবে না । আগামীতে বিষয় ভিত্তিক গল্প কবিতা আপনার কাছ থেকে পাবার প্রত্যাশা রইলো।
আরাফাত ইসলাম গঠনমূলক মন্তব্য করার জন্য রোদের ছায়া আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
দীপঙ্কর বেরা ভাল লাগল ।
আরাফাত ইসলাম আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা রইলো, আমার গল্পটি পড়ার জন্য !
এফ, আই , জুয়েল # সামাজিক জীবনে----, বিকৃত রুচিবোধের করুন দিকটা সুন্দর ভাবে ফুটে উঠেছে ।।
আরাফাত ইসলাম সম্ভবত ,আপনি আমার এখানে প্রথম পাঠক..তাই প্রথমেই ধন্যবাদ ! এফ, আই , জুয়েল আপনাকে মন্তব্যের জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ !!!!
মোঃ মোজাহারুল ইসলাম শাওন আসল জায়গায় হাত দিয়েছ। ভালো লাগলো।
আরাফাত ইসলাম আপনার ভালো লেগেছে ? খুশি হয়ে গেলাম তো :)
সহিদুল হক প্রবন্ধ হলেও সঠিক কথা.
আরাফাত ইসলাম মন্তব্যের জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ !
Rumana Sobhan Porag আরাফাত ভাই আপনাক ধন্যবাদ , আপনি সত্যিই একটি মৌলিক সমস্যা উত্থাপন করেছেন। আসলে নারী বা পুরুষ কারর ই এ রকম অশালিন ভাবে চল উচিৎ নয় ।
আরাফাত ইসলাম আপনাকে আমার লেখায় পাইয়া আমি যাহারপর নাই খুশি হইয়াছি !! আশাকরি এই ধারা অদূর-ভবিষ্যতেও অব্যহত থাকিবে ! [{( ইস্! কতদিন ধরে সাধু লিখি না !! ) আসলেই আপুনি আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।} একটা কথা আপনাকে বলেছিলাম মনে আছে ? (" আপনাকে নতুনদের ভিড়ে দেখতে চাই না ") না-হলে কিন্তু ধন্যবাদগুলো সব ফিরিয়ে নিব !!! ]
ওয়াহিদ মামুন লাভলু ভাল লাগল।
আরাফাত ইসলাম আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা রইলো, আমার গল্পটি পড়ার জন্য !
আমির ইশতিয়াক এটি গল্প নয় প্রবন্ধ হয়েছে। ভাল লাগল আপনার কথাগুলো।
আরাফাত ইসলাম এই যাহ্ ! এতক্ষণ তো গল্প বলেই চালিয়ে দিচ্ছিলাম, আপনি ধরে ফেললেন !! কি করব, বলুন ? প্রবন্ধের জন্য যে কোন আলাদা বিভাগ নেই !!!

১০ মার্চ - ২০১১ গল্প/কবিতা: ১ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

আগামী সংখ্যার বিষয়

গল্পের বিষয় "বাংলা - আমার চেতনা”
কবিতার বিষয় "প্রেম”
লেখা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৮ জানুয়ারী,২০২২