ঘুণে ধরা ঝরঝরে দরজার বাঁ কপাট ধরে
এলোকেশী তুমি আজো দাঁড়িয়ে থাকো;
ভাবে আমায়, ডাকো নিঃশব্দে।
ভীষণ ব্যস্ত আমি,
তোমায় দুকলম লেখার ফুরসত নেই।
তোমার সাপ্তাহিক চিঠির
মাসিক উত্তরও লেখা হয় না।
লবণে লংকার গুঁড়ো মিশিয়ে
বাঁ হাতের তালুতে নিয়ে
মনে কর আমায়,
সেই লংকায় তেঁতুল ছুঁইয়ে মুখে পুরলেও
মনে পড়ে আমায়।
লবণ আর লংকার মাখামাখিতে
ভীষণ হিংসে হয় তোমার,
হাহাকার করে মন!
তবুও....
আজো অসীম ব্যস্ততায় নিরুপায় আমি।
সান বাঁধানো ঘাট,
স্তব্ধ শান্ত জল দীঘির বুক জুড়ে।
সে জলে কল্পনায় মেশাও আমায়.
আলতো করে গায়ে মাখো,
ডুবে যাও ভেসে ভেসে।
আমি দূরে ইটের খোঁয়াড়ে বাঁধা
শান্ত মানবের বেশে -
ব্যস্ততায় ব্যস্ত হই সারাক্ষণ।
তবুও.....
তোমায় মনে পড়ে; মনে করি।