ইদানিং সন্ধ্যা না হতেই কষ্টরা রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়ায়
এ গলি ও গলি করে আমার বুকে বাসা বাঁধে
কি পরম তৃপ্তিতে রক্ত খেয়ে যায় ঘুমের ঘোরে ।
সূর্য উঠে ঘুম ভাঙ্গে, আমি পথ চলি সারাদিন
কষ্টরা আরো কষ্ট জন্মদিতে সঙ্গমে ব্যস্ত হয়ে পড়ে,
আলোয় আলোয় ভরকরে মিশে থাকে গিরগিটি
এগোয় সন্ধ্যার দিকে, কত অপেক্ষা হৃদয় চোষার
আমি অপেক্ষায় থাকি একটুরো সুখের ।
রূপ বদলে ঘোমটা দিয়ে হা করে থাকে কষ্টের সারি
পালতোলা নৌকার মতো নিরবে নোঙর করে
হৃদয় ঘাটে। আমি বুঝি কষ্টরাও খাদ্য চায়
সুখ চায় বংশ বৃদ্ধি চায় অমরত্ম চায়,
অনুসারী করতে চায় পৃথিবীর অণু পরমাণু সুখকে।
পৃথিবীর রঙিন সুখের ভিড়ে অদৃশ্য কষ্টরাও
কষ্ট করে বাঁচতে চায়, বস্তুর ধ্বংসে অস্তিত্ব চায়
আমি সুখ চাই। কষ্টরাও সুখ চায় লোহিত কণিকায়।