রক্তে মাংসে গড়া আমিও মানুষ
বুকের মাঝে ছিল ছোট্ট একটা ঘর,
সে ঘর ভেঙে চুরমার
জগত করেছে যেনো আমায় যে পর।
বুকের রক্তে ভিজে আছে হাত
বাড়াতে চাইনাকো কভু কারো দিকে
ভয় হয় খুব, ভিজাতে চাইনা আমি
অবলা সেই সুন্দর রূপটিকে
নদী কখনও শুকিয়ে গেলে তাকে
কেউ কখনও দাম না দিতে চায়,
দেহ মোর আজ শুকনো পাতার মত
ছাড় পোকা যেন তাকে কুরে কুরে খায়।
পূর্ব গগনে উজ্জ্বল হয়ে যখন
চেয়ে থাকে শশধর।
ধরণী তার রূপ ফিরে পায়,
হয়ে যেতে চায় নিশাচর।
কিন্তু হটাৎ যখন মেঘ কালো করে
চারিদিকে নেমে আসে আমাবস্যা।
পৃথিবী তখন ভীত হয়ে পড়ে
ফিরে যেতে চায় তার রূপের নেশা।
মোর হৃদয়ের তেমনি ছিল যে আশা
কিন্তু ভেঙে গেছে সব হয়ে গেছে শেষ,
বুকটা আজ মোর কষ্টে পরিপূর্ণ
কভু দেখতে চাইনা কোন সুন্দর পরিবেশ