তোমার শাড়ির ভাঁজে লুকিয়ে রেখেছি কিছু মৌনতার বোধ
তুমি তবু দৃষ্টিনিরোধ
চেয়ে দেখ পানপাত্রে লেগে আছে নিঃশ্বাসের ঘ্রাণ
চোখে চোখে শুষে নিচ্ছি- জীবনের পূর্ণ অনুপান

ব্যাকুল ঠোঁটের ভাঁজে, আড় হয়ে আছে কিছু মুগ্ধতার কণা
ছড়ানো জমিনে এসো এঁকে দেই যাদু আল্পনা
আঁচলে জড়িয়ে যদি তুলে নাও মেঘের হেঁয়ালি
অনুপম সঙ্গমে। যতবার এই জোড়াতালি-

ততবার অস্ফুটে কিছু কিছু বিরূপাক্ষ বোধ
আমাকে ভাসিয়ে নিচ্ছে। তুমুল বাজিয়ে নিচ্ছে
কামাতুর নেশার সরোদ
মায়াবী শাড়ির মত দুলে ওঠো আরো কিছু রোদেলা অসুখ
নিবিড় জড়িয়ে নাও; দুহাতে ভরিয়ে দাও
তাতানো অঙ্গ জুড়ে আজ শুধু বরফ ঝরুক

ও মেয়ে শাড়ির ভাঁজে, চেয়ে দেখ- জ্বলে ওঠে আতসী আগুন
আদিম গুহার দিকে তাক হয়ে আছি- এই সভ্যতার তূণ
তাকাও- তাকিয়ে দেখো, কি রকম অদ্ভুত তাজা তাজা ভোর
ঝাঁপানো বৃষ্টি মেখে, অবিরাম ভেজাচ্ছে- তৃষিত অধর