নতুন করে আর কষ্ট কি দেবে?
সাপের ফণার মত উদ্ধত চাউনির ছোবলে
কবে থেকে নীল হয়ে আছি
নতুন করে আর কি ভাঙবে?
হৃদয়ের ঘরবসতি কবেই তো পিষ্ট- উজাড়
তোমার উপেক্ষার বুলডোজারে

তোমাকে ভেবে ভেবে
আধেক রাত পার করে দেয়া
ইচ্ছের ঘুড়িগুলো- বুকের নাগাল ছেড়ে
কবেই তো ভো-কাট্টা, কিছু দোর্দণ্ডপ্রতাপ
মাঞ্জা দেয়া সুতোর দাপটে

চিলেকোঠায় শুয়ে এই যে আকাশ দেখি
এই যে বিষণ্ণ দীপাধার
মনের সলতেগুলো পুড়ে পুড়ে ছাই
সে ক্ষতির হিসেব মেলাতে
একটা জীবন
কত অনায়াসে পার হয়ে গেল

এখন বড়জোর এই সমাধিতে
তোমার নির্দয় পায়ের ছাপ
খুব বেশী যদি আশা করি- অনেক
দিনের জমাট মেঘ ভেঙে
দু’এক ফোটা বৃষ্টি
আমি তো আগের মতই
আকাশমুখী হতচ্ছাড়া চাতক

নতুন করে আর কি হবে?
বড়জোর তোমার সেই পাড়ভাঙা হাসিটির
মত বুকের পাঁজর ভেঙে চালিয়ে যাবে
পুরনো বনেদি মার্সিডিজ