বৃষ্টির রং গায়ে মেখে একদিন
আমি হারাই বর্ষার সেই পুরোনো দিনে
স্মৃতির আঁকাবাঁকা সিড়ি বেয়ে হাঁটি-
বর্ষার প্রতি আলে, প্রতিটি সবুজ মাঠে।

বকুলের ঘ্রানে মুগ্ধতা ঝরিয়ে সন্তপর্নে খুজি
ফুল কুড়োনো বিকেল, নৌকোর গুলুই উপচানো সন্ধা
কিংবা বন্ধুর উঠানে জমে উঠা গল্পের আসর-
যা আজ বৃষ্টি হয়ে ঝরে পরে চোখের আঙিনায়।

এই বর্ষায় পাড়ার সব বালিকারা
নূপুর পায়ে অথৈ কাদায় যায় কদম কুড়াতে,
তাদের আমি মানা করছি কদম কুড়াতে
তাহলে তারাও যে ভুগবে এক কালের বর্ষার স্মৃতিতে।