এতটা ভালবাসিস নে পাগল-বড্ড ভারী লাগে -শুনছিস্!
মন যে আমার এলোমেলো - সামলাতে পারি নে কিছুই
এতটা প্রেম দিসনে আমায় - মন যে আমার ফুটো থলে
কোথায় রাখব প্রেম তোর আর এই সমুদ্দুর ভালবাসা!


আমি অসহায় খুব, কিছুই রাখতে পারি নে নিজের করে
তার চেয়ে ঢের তুই ফিরে যা - অবহেলায় ফেলে রাখি যে!
এত অবহেলা আর এত তিক্ততা পেয়ে কেই বা কাছে থাকে
সময় ফুরালো তবে চলে যাব দেখিস অন্তহীনে হারিয়ে,
আমায় তুই বিশ্বাস করিস নে পাগল আর - আমি এমনই
সুতো ছেঁড়া ঘুড়ি - যেনো - খুব বেখেয়ালী আর ছন্নছাড়া।


ওড়ি ঘুরি দিবারাতি খাম খেয়ালীপনায় - মুল্যহীন সকল!
বিতৃষ্ণা জমবে তোর মনে দেখে নিস - দোষতে আসিস নে,
কিছুতেই আর মন লাগে না আমার, না প্রেম, না ভালবাসা
সবই পানসে লাগে - বড্ড অস্থির এই মন- বুঝে না কিছুই।


কি ফেলে কি তুলে রাখি মনের গোপন কুঠুরিতে বুঝি নে
ভালবাসা না প্রেম, না অভিমান - না কুঁড়াব শিহরণ..
হাতড়িয়ে ধরি অস্পৃশ্য ব্যথা, ফুটো থলে কিছুই অবশিষ্ট নেই
ঝরে পড়ে সব মিশে যায় ধুলোয় - আমি নি:স্ব বড্ড নি:স্ব রে।


কবিতার শিরোনামে বসাই ধূসর রঙ্গের শব্দ, সব অচেনা
নিথর মন ক্রন্দনে রত - আর তুই খুঁজিস সেথা আশ্রয়-
পারব নে আমি সামলাতে ভালবাসার ভার - ক্ষয়ে গেছে বল
তুই ফিরে যা, ফিরে যা - অবেলায় নাড়িস নে মন দুয়ারে কড়া,
আমি যে ভালবাসার যোগ্য নই - ভালবাসলেই পাবি কষ্ট...
দেয়ার মত কিছুই নেই আর - আমার, শুধু আছে দীর্ঘশ্বাস..
নিবি? আছে কার্বন ডাই অক্সাইড, নিবি? আর আছে যন্ত্রণা-
নিবি? আর আছে কিছু হতাশা, নিবি? বয়ামে রেখেছি কথার
ঝাঁ ঝাঁ রোদ্দুরের তেজ, নিবি? জ্বলে যাবি, পুড়ে যাবি- মরবি
ডুবে হতাশার জলে! ফিরে যাবি, নয়তো মরবি, কি চাস?



তবু তুই পাগলের মতই ভালবাসলি!! সত্যিই সেলুকাস-
কি বিচিত্র তোর মন! তারপরও শক্ত হাতে মন দুয়ারে খাড়া
কড়া নাড়ছিস তুই সজোরে- সাড়া না পেয়েও আছিস অপেক্ষায়
এ তুই কেমন তুই বল্ - ভাল না বাসলেও যে বাসিস ভাল
এ তুই কেমন তুই - চোখে প্রেমের আয়না ধরিস!!
এ তুই কেমন তুই- ঘুরে ফিরে আসিস কাছে
এ তুই কেমন তুই - নিরাশার ঢেউয়ে আশা খুঁজিস!!

ভালবাসা বুঝি এমনই??