একটা জীবনের উপর অনেক ভাবেই ঝড় বয়ে যায়। কখনো সাংসারি ঝড় মনোমালিন্য, কখনো অসুস্থতার ঝড়। আবার কখনো প্রেমের ঝড়। এই কবিতাটিতে প্রেমের ঝড় নিয়ে লিখা হয়েছে। কারো মনে কে হঠাৎ প্রেম হয়ে আসে, তাকে ভাব্লেই বুকে উঠে তুলপাড় ঝড়।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৭ আগস্ট ১৯৭৭
গল্প/কবিতা: ১০২টি

সমন্বিত স্কোর

১.৬২

বিচারক স্কোরঃ ০.৪২ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.২ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - ঝড় (এপ্রিল ২০১৯)

তুমি গাংচিল আমার কবিতার শিরোনাম...
ঝড়

সংখ্যা

মোট ভোট প্রাপ্ত পয়েন্ট ১.৬২

এই মেঘ এই রোদ্দুর

comment ২  favorite ০  import_contacts ৮১
অতঃপর তুমি আসলে....
গাং চিল হয়ে ওড়ে
আমি বালিতে বসে দেখছি সূর্যাস্ত
অস্তাভার আলোয় তুমি ডানা মেলে এলে খুব কাছে
কাছে আসলে বসলে... ছিলে যদিও দূরে
আর আমি হই অথির....
অতএব করলে আচম্বিতে মন অভ্যাহার
অভ্রম ভুলে তোমার নরম পালকের আশ্রয়ে নিজেকে দিলাম সঁপে।

তুমি ছিলে প্রেমের চুরাবালি...
ছন্দের ঝড় তুললে মনে,
ভিতর বাড়ির ভিত দিলে নাড়িয়ে..
চুরাবালি থিরথির করে জায়গা করে দেয় তোমায় আমায়
আমি তুমি তলিয়ে যাই মন্থর
শিহরিত প্রেমের আঘাতে
তুমি আমি ধৃয়মান....
ঘোরে কেটে যায় শত সহস্র যুগ...
সহসা ডানা ঝাপ্টিয়ে এলো এলবেট্রস
ডানা ওড়া শীতল হাওয়ায় কোমা থেকে উঠি জেগে
মনের দেউড়ি খুলে দেখি তুমি নেই
আমার ভালবাসার গাংচিল!

শুধু চোখের পাতা ছুঁয়ে ছিল এক খসে পড়া পালক..
আর বালিতে গড়াগড়ি খাচ্ছিল একশত দুইটি নীল সরোজ
একটি নীল বোতাম!
ঊষসীর আলোয় আঁচলে কুঁড়িয়ে নেই সন্তর্পণে।
তুমি চলে গেলে, মন সমুদ্র নিথর, ঢেউ হল নিবর্ত
নিবাত বুকের বামে চিনচিন ব্যথায় আমি ডুবে যাই ফের
উচ্ছ্বল ঢেউয়ের সেই কবিতা নদীতে
আর তুমি গাংচিল হয়ে যাও আমার কবিতার শিরোনাম।
এসো না, দূরেই থাক আমার ছন্দের গাংচিল
কবিতার শিরোনাম হয়েই থাকো!
থাকবে?

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement