গভীর রাতে তেনাদের দেশে

স্বপ্ন সংখ্যা

Sangita Saha
  • ১৯১
নিউইয়র্কের সেকেন্ড এভিনিউ। অফিস থেকে বেরিয়েই হাটতে লাগলাম ডাউনটাউনের রাস্তা ধরে। আজ অফিসে বসের সঙ্গে কথা কাটাকাটির পর থেকে মাথাটা ধরে আছে। অন্য কোনো দিকে না গিয়ে সোজা বাড়ি চলে এলাম। ডিনার শেষ করে টেবিলে ল্যাপটপ নিয়ে বসলাম। প্রজেক্টের সমস্যাটা দেখতে লাগলাম। কাজ করতে করতে রাত বেশ গভীর হয়ে এসেছে। অমনি জানলার ধারে দেখলাম মনে হলো কে যেন সাদা কাপড় পড়ে হেটে গেল। হয়ত আমার মনের ভুল যেহেতু আজ অনেকটাই ক্লান্ত বোধ হচ্ছে সেজন্য হয়তো মনের ভুলে উল্টোপাল্টা দেখছি। তারপর আমি দেখলাম জানালা ভিতরে কে যেন হাত ঢুকিয়ে আমাকে ডাকছে। আমি জানলার সামনে যেতেই আমাকে বলছে, “আমার খুব বিপদ একবার দরজা টা খুলুন।” আমি বাড়ি সদর দরজাটা খুলতেই আমার হাতটা টেনে নিয়ে কোথাও যেন নিয়ে চলে যাচ্ছে। আমি খুব চিৎকার করলাম। আমি বললাম, আমাকে কোথায় নিয়ে যাচ্ছেন আপনি। সে আমাকে বলল, ‘আমাদের দেশে’। কিছুক্ষণের মধ্যে আমাকে নিয়ে চলে গেল একটা গুহার মধ্যে। সেখানে সেই সাদা কাপড় পরিহিত মানুষটির মতো আরো বহু মানুষ আছে তারা প্রত্যেকেই সাদা কাপড় পড়ে আছে। আমার তো ভীষণ ভয় করতে লাগল ।প্রাণ যায় যায় অবস্থা। তাদের মধ্যে থেকে একজন বলে উঠল, “অনেকদিন মানুষের রক্ত খায় নি”। আমার তো ভয়ে প্রাণ শুকিয়ে এলো। তারপর আমি সেখান থেকে দৌড়ে পালিয়ে আসার চেষ্টা করলাম। তৎক্ষণাৎ তারা আমাকে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করল। আমাকে তারা ধরে আটকে রাখার চেষ্টা করছে। আমি কিছুতেই সেখানে থাকতে চাইছি না। এরকম হাতাহাতি করতে করতেই তারা হঠাৎ আমাকে ঠেলে ফেলে দিলো পাহাড় থেকে খুব নিচে একটি গভীর খাদের মধ্যে। আমি চিৎকার করতে করতে খাদে পড়ে গেলাম।
অমনি আমার এলার্ম টা বেজে উঠলো। ও বাবা আমি তো স্বপ্ন দেখছিলাম। উঠে দেখি জানলার ধারে কে যেন একটা কুমড়ো আর একটা কঙ্কাল রেখে গেছে। মনে পড়ে গেল আজ তো হ্যালোইন। আসলে গতকাল অফিস থেকে ফেরার সময় রাস্তায় হ্যালোইনের জন্য অনেক ভুতুড়ে থিম দেখেছিলাম। সেজন্যই হয়তো স্বপ্নে দেখলাম কেউ যেন আমায় ভুতের দেশে নিয়ে গেল।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
Lutful Bari Panna ওরে বাবা! ভূতুড়ে স্বপ্ন!
আতিক সিদ্দিকী ভাল লেগেছে।
Dipok Kumar Bhadra লেখার থিম আরও বড় হলে ভাল হয়।

লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

স্বপ্ন নিয়ে আমার একটি অভিজ্ঞতাকে গল্পে পরিণত করলাম।

২৩ আগষ্ট - ২০২০ গল্প/কবিতা: ১ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

বিজ্ঞপ্তি

“নভেম্বর ২০২১” সংখ্যার জন্য গল্প/কবিতা প্রদানের সময় শেষ। আপনাদের পাঠানো গল্প/কবিতা গুলো রিভিউ হচ্ছে। ১ নভেম্বর, ২০২১ থেকে গল্প/কবিতা গুলো ভোটের জন্য উন্মুক্ত করা হবে এবং আগামি সংখ্যার বিষয় জানিয়ে দেয়া হবে।

প্রতিযোগিতার নিয়মাবলী