বাসন্তি রং শাড়ী ছিল তার,
দুধে আলতা গায়।
হাতে ছিল তার সোনার চুড়ি,
রূপার নূপুর পায়।

নাক ছিল তার নোলক পড়া,
কানে ছিল তার দুল।
চুলগুলো তার কাজল কালো,
খোপায় ছিল ফুল।

ভ্রমর কালো চোখ দুটো তার,
ঠোট দুটো তার লাল।
মায়ায় ভরা মুখ খানা তার,
লজ্জায় রাঙ্গা গাল।

অপরূপ এক রূপবতী,
যেন সদ্য ফুটা ফুল।
পবিত্র তার মুখের হাসি,
হৃদয়ে জাগায় দুল।

বসন্তের এক শেষ বিকালে,
দেখা হলো তার সাথে।
নগ্ন পায়ে হাটছিলো সে,
গাঁয়ের মেটো পথে।

প্রথম দেখেই ভালোবেসে,
দিলাম তারে মন।
সে যে আমার ভালোবাসা,
আমার প্রিয়জন।