তোমার অশ্রু সিদ্ধ নোনা জলে বিশ্বাস করেছি ,
সেই কি ছিল মোর অপরাধ ।
বিশ্বাস করেছি প্রতিটি শব্দের সমষ্টি ,,
কলংকের কালি মেখে হ্নদয়ে আসন দিয়েছি ,
বিনিময়ে শুধু সন্ধি চেয়েছি ।
দুত হয়ে শুণীয়েছি সত্যের বাণী ,
জ্যৌতি হয়ে দেখেয়েছি পথ ।
সেই কি মোর অপরাধ ।
সহস্র বাধা ফেরিয়ে তোমার পাশে থেকেছি ,
নির্ঘুম আঁধারে পাড়ি দিয়েছি পথ ।
শুনেছি প্রীতিজনদের বঞ্চনা ,
শুধু তোমার জন্য ,
সেই কি মোর অপরাধ ।
তোমার ঐ বাল্য সুলভ দৃষ্টি ভঙ্গি ,,
আমাকে আরো মোহনীয় করে তুলেছে ।
তোমার হ্নদয়ের কঠিন দাবানলে ,,
তুষার বৃষ্টিপাত ঢেলেছি ।
কিন্তু তুমি আমার সাথে নর ঘাতকের পরিচয় দিলে ।
তোমার ফণাধরা শব্দ সমষ্টি ,
আমার হ্নদয়ের গহিনে বিষ্ফরিত করেছে,
সেই বিষের জ্বালা সমস্ত শরীর চেয়ে গেছে ।
তোমাকে বিশ্বাস করেছি বলে
সেই কি ছিল মোর অপরাধ ।
আমি তোমাকে ত্রিশালয়ের দেবী বেভেছিলাম,
কিন্তু তুমি মরতের রাক্ষুসী হয়ে ধরা দিলে ।
তোমার হিংসাত্মক আক্রমণ ,
আমাকে অনুশুশনার অনলে তিলে তিলে খাচ্ছে ।
প্রীতির বদলতে স্বয়ং পিষাস হলে ,
জীবনের সব চেয়ে বড় ভূল ,,
তোমাকে বিশ্বাস করেছি বলে ।