ডাকলেইকি আসতে পারি বল!
এখনওতো ব্যস্ত উঠোন
অবেলাতেও তীক্ষ্ণ শকুন
দিচ্ছে উড়াল..
আকাশ জুড়ে রক্তপাতের
চিহ্নটুকু চুঁইয়ে দিয়ে
ব্যস্ত শকুন করছে কোলাহল।




ডাকলেইকি আসতে পারা যায়!
ভিতর ঘরে যতই থাকুক
ইচ্ছেগুলোর আহাজারী
হৃদয় জুড়ে বাড়ুক ক্ষত,
বাড়ছে তত
সর্বনেশে রঙ বুলিয়ে
ইচ্ছেপোড়া অভিমানের দায়।


ডাকলেই কি আসা উচিত বল!
আবার যদি শিমুল দিনে
ভ্রমর বিহীন শূন্য বনে
একলা প্রাতের একলা পাখি
একাই করে ডাকাডাকি,
তাতেও কি নিভবে কভু
ইচ্ছে হৃদ-অনল!


ডাকলেই কি আসতে পারে কেউ!
সময় যতই তৈরী থাকুক
কাছে যাবার ঘোরেই ভাসুক
মনতরীতে একলা মাঝি...,
প্রিয় গোপন স্মৃতির বাসর
কাজল দীঘির শিতল জলে
বইছে আজও বিস্মরণের ঢেউ।




ডাকলে শুধুই কে এসেছে কবে?!
কার নাকছাবিটার দাম মাড়িয়ে
শূন্য খোলা খাম হারিয়ে
কে রেখেছে পত্রখানি
মন কোঠরে যতন করে,
পদ্মপাতায় রক্ত গোলাপ জড়িয়ে দিয়ে
কে বলেছে তুমি আমার হবে!


ডাকলে শুধুই যায়না যে আর আসা
ডাকিসনে আর যখন তখন
খুঁজতে গিয়ে অরুপ রতন
হঠাৎ পাওয়া সোনার হরিণ
স্বপ্নটাকে সত্যি করে
মনন জুড়ে যতই বাঁধুক বাসা।।