প্রকৃতির সৌন্দর্যে মনোমুগ্ধ হয়ে,গ্রামের সাধারণ কৃষকের কথা ফুটিয়ে তোলার জন্যে আমার কবিতাটি।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২৯ জানুয়ারী ২০১৯
গল্প/কবিতা: ১টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - নবান্ন (অক্টোবর ২০১৯)

আমার গ্রাম
নবান্ন

সংখ্যা

মামুন হাসান জয়

comment ০  favorite ০  import_contacts ২১
মায়া দিয়ে জড়ানো,
সবুজ দিয়ে মোড়ানো,
আমার জন্মভূমি দলপা ।
ছায়ায় ঘেরা,মায়ায় ভরা,
আমার গ্রামখানি।
সুজলা-সুফলা,শস্য -শ্যামলা মোর গ্রাম ।
চির সবুজের সমারোহে ঘেরা,
স্নিন্ধ নীল আকাশ,
যেখানে ভোরবেলা পাখির কোলাহলে,
ঘুম ভেঙে যায়, পাখিরা গান গায় ।
মিতালি আকাশ ছায়ায় ঘেরা,
মায়ায় ভরা মোর সোনার গ্রাম ।
চাষি করছে লাঙ্গল চাষ,
সবুজ শ্যামল মাঠে ।
বৈশাখ আসতে না আসতেই,
কৃষকের মন হয় ব্যাকুল,
কাস্তী হাতে নিয়ে প্রভাত বেলা,
পান্তা ভাত খেয়ে ছুটে চলে মাঠে,
ঘরে তুলিতে সোনার ফসল ।
সোনালি ফসল দেখে সব-দুঃখ যেন যায় গুছিয়ে,
মন কেড়ে নিয়ে যায় মৃদু হাওয় আকুল বেগে ।
মনের আনন্দে কৃষকেরা সবাই মিলে,
গায় মারপতি আর ভাটিয়ালি।
জন্মেছি আমি যেথায়, সেথায় মোর জন্মভূমি।
যার তুলনা কোথাও নাই ।


advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

    advertisement