জীবনের সেই দুরন্ত সময় এসেছি পিছনে ফেলে
যেখানে মৃত্যুরা ডাকে হাতছানি
গিয়েছি সেখানে কিছুই না জানি
আগুনের সাথে পাঞ্জায় নেমেছি জিতেছি মরিয়া খেলে

ভীষণ আঁধারে বনের গভীরে পালিয়েছি ঘর ছেড়ে
পাতার স্তুপেতে আগুন জ্বেলেছি
আদিম ছবির কাহিনী খেলেছি
পুড়েছে কখনো বিশাল জঙ্গল আগুনের ক্রোধ বেড়ে

ভালোই কেটেছে দুরন্ত কৈশোর এখনো মনেতে ভাসে
ঘুমের ঘোরেতে এখনো পুরান স্মৃতিমালা ফিরে আসে

ভয়াল স্রোতের খরস্রোতা নদী পেরিয়ে গিয়েছি হেসে
ঝড়ের মাঝেও ভেসেছি ডিঙিতে
সাগর যেখানে মিশেছে নদীতে
অচেনা সাগরে পথের নিশান হারিয়ে কেঁদেছি শেষে

'আলাদিন' পড়ে 'চেরাগ' খুঁজেছি নেমেছি অজানা গর্তে
নিজেকে নিজেই 'কিশোর' ভেবেছি
'রবিন হুডের' মতোও সেজেছি
'জুলভার্ণ' পড়ে ঘুরেও এসেছি অজানা উতালা মর্তে

ভালোই কেটেছে দুরন্ত কৈশোর এখনো মনেতে ভাসে
ঘুমের ঘোরেতে এখনো পুরান স্মৃতিমালা ফিরে আসে

কত ছেলেদের কপাল ফেটেছি করেছি কত যে মিত্র
জমিদার বাড়ি চুপে চুপে যাই
পেড়েছি চালতা সকলে মিলাই
বাড়ি ফিরে দেখি নতুন জামার থাকেনি পুরোনো চিত্র

নতুন দীঘিতে সাঁতার কেটেছি ফিরিনি দুপুরে বাড়ি
হারিয়ে গিয়েছি অচীন পথে তে
চড়েছি কখনো মাতাল রথে তে
কখনো চড়েছি টিকেট ছাড়াই ছাদে বসে রেলগাড়ি

ভালোই কেটেছে দুরন্ত কৈশোর এখনো মনেতে ভাসে
ঘুমের ঘোরেতে এখনো পুরান স্মৃতিমালা ফিরে আসে