বেলা শেষে

বৃষ্টি ভেজা (জুলাই ২০২২)

সাদিকুল ইসলাম
মোট ভোট প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৬৩
  • ৪০১
অনেক দিন ধরে ভাবনার আকাশে নিঃসঙ্গতার ঘুড়ি
উড়াতে উড়াতে আজ প্রায় ক্লান্ত।
বিষাদের তরী বাইতে বাইতে দিশেহারা নাবিকের মত,
একাকীত্বের সিগারেটে একটা সুখ টান দিতে খুব ইচ্ছে করে।
হাতে রয়েছে দীর্ঘশ্বাসের লাইটার,
যে লাইটার শুধু নিজের বুকে আগুন জ্বালাতে জানে।
যার দহন জ্বালা অনুভবে দাবানলের চিতা। তাই,
জ্বলসে যাওয়া ভয়ে নির্ভয়ের হালখাতা খুলতে পারিনি।

দেখতে দেখতে কালো চুলের রং মহলে,
কাশফুলের মেলা বসে গেছে,
কালো মেঘের আবরণ ছেড়ে,
সাদা মেঘে ভরে গেছে সময়ের ব্যবধানে।
আজ চিরুনির আলতু আদরও অসহ্য মনে হয়,
তাই রং বদলের অভিমানে, অতিষ্ট হয়ে
অবসরের সারিন্দা বাঁজাতে বাঁজাতে ,
মস্তক মরুভূমি।

একসময়ের ক্লীনসেপ করা টাইলস বসানো চিবুক,
আজ মুখ ভর্তি দাড়িতে সাদা পাটের অগোছালো
উসকো খুসকু সন্ন্যাস বরন রুপ,
দিন বদলের চাকায় কখন যে পিষে গেছি,
তা হয়তো বলতে পারবো না।
কিন্তু পাকা দাড়িতে মেহেদির রং মেখে ,
মনের দেউরিতে ভিন্ন স্বাদের ঘ্রাণ।

যে চোখের রক্তিম রাঙ্গনীতে একসময়
চারপাশ ভয়ে তটস্থ হয় থাকতো,
আজ সেও কাঁচের আড়ালে মুখ লুকাতে ব্যস্ত।
নেত্র গুনের পাত্র বলে পাড়ার উড়তি বয়সী ললনারা,
দৃ‌ষ্টি বনে মধু আহরনে চারিপাশ বিচরনে ব্যস্ত থাকতো।
আজ সেই নয়নে পরাজিত সৈনিকের নতজানু শিরে,
কয়েক দফায় ছানি অপারেশন করানো হয়েছে।

দন্ত নামের করাত কলে চিবিয়ে খেয়েছি বিশ্ব ,
নির্দয়ভাবে পিষিয়ে হজম করেছি শত অসম্ভব।
সে করাতে মরিচা ধরেছে আজ,
খুঁটির গোড়ায় পচন ধরেছে বহুদিন হয়,
শেষে টিকতে না পেরে প্রস্থানে হরিবল।
দাঁত থাকতে কদর বুঝিনি , তাই আজ
অবস্থা দেখে প্লেটের হাড় মাংস মুচকি হাঁসি হাঁসে।

যে পায়ের ধ্বনিতে মৃদু ভুকম্পন বয়ে যেতো,
আজ সে নিজেই কম্পিত ।
একসময় লম্ফজম্প আর গতিময় গিয়ারে থাকলেও
আজ নিয়ন্ত্রনের স্টিয়ারিং চেপে ধরার জন্য
লাঠি নামক মহাশয়ের দারস্থ।

যে দেহ একসময় কোলে কোলে আদরের পুলকিত থাকতো,
দোলনায় দোল খেয়ে ঘুমের রাজ্যে রুপকথার গল্প শুনতো,
বয়সের মধ্য দুপুরে নানা পোশাকে মনোহর রাখতো,
সে মানব গাড়ির তেল মবিলে ডায়বেটিসের কড়া শাসন।
পার্টসগুলো আগের মত কাজ করতে চায় না।
মিস্ত্রির মেরামতে সাময়িক পথচলা।
হয়তো বেশি দিন নয় , একদিন
নিথর হয়ে, চার কাঁধে বয়ে চলে যাবো অনন্তে।

যেদিন এসেছিলাম ভবে সেদিনও একাই ছিলাম কান্নায়,
হেসেছিলো সবে পেয় আনন্দ সুখ,
মাঝখানে বন্ধু লয়ে দুদন্ড সময় করিলাম পার হেসেখেলে,
বেলা শেষে যেতে হবে একা,
তবে কেন এতো আহা মরি ভাব।
মায়াজালের মমতায় পড়ে , ধরাকে সরা জ্ঞান করে,
কাটালাম বহু ক্রোস ধরে।
আজ বিদায় বেলা।
আমি একলা।


,
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
জয় শর্মা (আকিঞ্চন) মর্মান্তিক! ভালোলাগা রইলো প্রিয়।
ফয়জুল মহী সুন্দর শব্দ চয়ন।আপনার প্রতিটা লেখনীর মধ্যে একটা বিশেষত্ব রয়েছে

লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

পৃথিবীতে এসেছি একা আবার একাই চলে যাবো। তাই কোন বাহাদুরী ভাব না থাকাই ভালো।

০৬ আগষ্ট - ২০১৯ গল্প/কবিতা: ২৭ টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৬৩

বিচারক স্কোরঃ ১.৬৩ / ৭.০ পাঠক স্কোরঃ ৩ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • দ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

আগামী সংখ্যার বিষয়

গল্পের বিষয় "বন্ধুত্ব”
কবিতার বিষয় "অভিমান”
লেখা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৫ অক্টোবর,২০২২