সারারাত কাদঁলাম ,
আমার অশ্রু ধারন করতে গিয়ে কষ্ট হয়েছে প্রকৃতির পাতা ছাড়া গাছগুলোর,
এক একটা অশ্রুবিন্দু তীরের মত বিধেছে উলঙ্গ গাছগুলোর বুকে
সারা শরীর বেয়ে বেয়ে ওরা সেই অশ্রুকে সযতনে মাটির বুকে পাঠিয়েছে
তবুও অশ্রুকে কষ্ট দেয়নি নষ্ট হতে দেয়নি।
আমার কান্নায় কষ্ট হচ্ছে রাস্তার ধারে পড়ে থাকা নেংটা পাগলটার
কষ্ট হচ্ছে রেল লাইনে ধারে লুঙ্গীর ভিতর গুটিশুটি মেরে শুয়ে থাকা মানুষগুলোর
একটা শাড়ি দিয়ে কোন মতে টিকে থাকা মা-দের
কংক্রীটের কঠিন ঠান্ডা বুক ভেদ করে ভেতরে গিয়ে কফ জমা বাচ্চাগুলোর।
গায়ের কৃষক ভোর হতেই যাদের জমিতে সেচ দিতে হয়
দিনমজুর যারা কাজে না গেলে খাবার জুটবে না।
আমার কষ্টে সবাই কষ্ট পাচ্ছে , জানি আমি
তবুও মানতে পারিনা
তোমার ভালবাসার উষ্ন পরশ না পেলে আমি কাদঁতেই থাকব।
হে সূর্য শীতের সুর্য কেন তুমি এলে না?
শুধু তোমার জন্য চারদিকে সাদা চাদরে মুড়িয়ে বুকটা পেতে রেখেছি
তোমার আলিঙ্গনের উষ্নতায় আস্তে আস্তে সরে যাবে সাদা চাদর
আমার সাথে সাথে হাসবে প্রকৃতির সকল কষ্টপাওয়া জীবগুলো।