চেতনায় বাংলাদেশ কবিতায় বাংলাদেশকে এক অন্যান্য উচ্চতায় আসীন করা হয়েছে।বুকের রক্ত দিয়ে বাঙ্গালী দেশ স্বাধীন করেছে।অথচ এসকল শান্তিপ্রিয় স্বাধীনতাকামী মানুষের বুকের উপর বসে আছে কতিপয় ভদ্রবেশী হায়না নামক ঘুষখোর, সুদখোর, জুয়াখোর, মাদকসেবী, দূর্ণীতিবাজ সন্ত্রাসী।কবি মনে করে চাইলে সবকিছু করা যায়।কিন্তু এসব দানবদের হাত থেকে দেশ বাচাঁনো বড় কঠিন।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৩১ মে ১৯৭৮
গল্প/কবিতা: ৪টি

সমন্বিত স্কোর

১.৫৫

বিচারক স্কোরঃ ০.৩৫ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.২ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - বাংলাদেশ (ডিসেম্বর ২০১৯)

”চেতনায় বাংলাদেশ”
বাংলাদেশ

সংখ্যা

মোট ভোট প্রাপ্ত পয়েন্ট ১.৫৫

সাইদ খোকন নাজিরী

comment ৭  favorite ২  import_contacts ২২৫
আমি পাহাড়ের চূড়াঁয় দাঁড়িয়ে সৈকতের দিকে তাকিয়ে আগামী
বাংলাদেশের সোনালী স্বপ্ন বুনি।
আমি নরকের সীমাহীন অণলের মাঝে বাঙ্গালীদের জন্য
শীতল ছায়াবৃক্ষ রোপন করি
আমি অমাবশ্যার কালো রাতে পূর্ণিমার সঞ্চিত জোসন্না
বাংলার আকাশে বিক্ষিপ্ত করি
আমি ফুটপাতের বস্তিঘরে শুয়েশুয়ে আধুনিক চির সবুজ
স্বনীল বাংলাদেশের নকঁশা আঁকি
আমি আটলান্টিকে ভেলা থেকে বীর বাঙ্গালীর জনমজনম
বেচেঁ থাকার ইতিহাস রচনা করি।
আমি মাটির পৃথিবী থেকে আসমানবাসীর সাথে বাংলা
ও বাংলার মানুষের কথা বলি
আমি দেশের জন্য সব কিছু করতে পারি।দাফনের কাফন
খুলে মুর্দাকে জিন্দা করার মন্ত্র পড়ি
আমি পারলামনা বঙ্গ জননী!সমাজের অলিতে-গলিতে অজগর
মার্কা কালো বিড়ালগুলোকে উচ্ছেদ করতে।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement