এখন সময় কেবলই তোমার-আমার,
সপ্তঢঙে চুমু তোমায় প্রেমের উপহার !
সপ্তরঙে সাজানো, সপ্তসুরে বাজানো-
দু:সময় তাড়ানো- যুগল ভালোবাসার ।


(এক)
সা রে গা মা পা দা নি ভায়োলিনে বাজুক,
দেয়াল ঘিষে দাড়াও - ঠোটে-ঠোট সাজুক ।
(দুই)
থেমে যাক হঠাৎ বেসুরে ঝগড়ায়- শব্দ দূষণ,
তাল ফেরাতে তোমার কপালে সিক্ত নিবেদন!
(তিন)
নিস্তব্দ সময়ে তুমি, আমি নির্জনতায়-
এসময়ে একই উপহার বরাদ্ধ ঠোটের পাতায়!
(চার)
চকলেট-আইসক্রিম না দিয়ে ভাগ পারবেনা খেতে-
মনে রেখ, সেই সময়ে দু যুগল ঠোট ওঠবে মেতে!
(পাঁচ)
কোন কারণে তোমার কান্নার জল সইতে পারবো না-
কথা থাকলো, মুছে দিবো হাত দিয়ে, ঠোটে থামবো না!
(ছয়)
হঠাৎ হঠাৎ নানা ছলে সুযোগ করে বের -
রাখবো ইচ্ছেমতো তোমায় ঠোটে ধরে পুন:পুন ফের !
(সাত)
সর্বাঙ্গে চুমুর খেলা রঙেঢঙে চলবে জীবনভর-
চলবে সময়, চলবে তোমার-আমার স্পর্শকাতর আদর!!!


পুনশ্চ : এখন সময় কেবলই তোমার-আমার,
সপ্তঢঙে চুমু তোমায় প্রেমের উপহার ।।