প্রদত্ত বিষয়বস্তু ”আঁধার” এর সাথে আমার লেখা কবিতার সামন্জস্যতা আছে । আমাদের প্রায়ঃশ আঁধারকে খাটো করে দেখার এক প্রবৃত্তি কাজ করে যেটা মোটেই সমীচীন নয়। আঁধারকে আশ্রয় করেই দেখার বাসনা পুরাতে হয় আমাদের । আলো –আঁধার একই মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ । আঁধারই আলোকে সমহিমায় ভাস্বর হতে সহায়তা দান করে থাকে।যেমন রাত আছে বলে দিনকে আমরা অনেক ভালবাসি তেমনি আঁধারের গৌরবকে ভুলে যাওয়ার কোন অবকাশ নেই।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১০ জানুয়ারী ১৯৯৩
গল্প/কবিতা: ১টি

সমন্বিত স্কোর

২.৪৩

বিচারক স্কোরঃ ১.০৩ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৪ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - আঁধার (সেপ্টেম্বর ২০১৮)

আঁধারেআলো
আঁধার

সংখ্যা

মোট ভোট প্রাপ্ত পয়েন্ট ২.৪৩

Karno Sudra

comment ১৪  favorite ০  import_contacts ২০৮
একচিলতে আয়েশী ভাব
গায়ে মেখে প্রতিক্ষায় তোমায়
সোনা ঝরা সকালের রোদ
নষ্টালজিয়া মন আজ
আড়ষ্টতায় ভর করে বাঁচে
নিয়ে এক জীবন্মৃত বোধ
নির্নিমেষ চাহনীর প্রতি দয়াবশত
কে যেন সামনে এসে দাড়াল আমার
আমি তাকে শুধালাম
কে ভাই তুমি
প্রত্যুত্তরে সে বলল,নাম তার আঁধার
জংঘা, গ্রীবা, পাদদেশ
সমস্ত কিছুতে অজস্র বলনা কি তার
মোকাবিলায় সিদ্ধ হস্ত সকল বিপত্তি বাধার
আমি বললাম তা হোক
তবু আমি তোমাকে চাই না
শিশিরের সাথে খেলা করা
হিমেল হাওয়ায় ভর করে আসা
সকালই আমার চাই
আমি আঁধারকে তাড়িয়ে দিলাম
গভীর ভর্ৎসনায়
তোমাকে তাড়িয়ে দিয়ে আঁধার
এখন আরো বেশী আপন তুমি
যেমন ভুলতে গেলে
বেশী মনে পড়ে পুড়া মনে প্রেয়সী
তোমাকে তাড়িয়ে দেওয়ার পর
হারিয়ে গেছে আমার
কাজল নয়ন তারার রন্ধ্র
অনেকটা পথ, অনেক সময়
দেরি হয়ে গেছে বুঝতে
তোমাতে আর আলোতে
নেই কোন দ্বন্দ্ব।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement