মা যে মোর নরম মুখের শক্ত কথা
ব্যাক্ত করার ধার ধারেনা,
কি বলি ! আহার নাকি নিদ্রা যাবো
মা বিনে আর কেউ বোঝে না ।

মা তো সে একটুখানি হোঁচট খেলে
চক্ষু ফেঁড়ে অশ্রু ঝরে,
মমতার আঁচল পেতে আঁকড়ে ধরে
খোকা বলে হৃদ পাজরে।

মাকে ছেড়ে অনেক দুরে
ভৃত্য আমি মাতৃ হারা,
প্রতিরাতে মা কে ভেবে
চক্ষুতে বয় জলধারা।

মাগো তোমার ছোট্ট ছেলে
দেখোনা আজ কত্ত বড়,
আজ আমার হাতটা তুমি
শক্ত করে ধরতে পারো।

হে মা’বুদ আামার মা কে
তুমি তোমার বেহেস্ত দিও,
মায়ের হক আদায় যেন করতে পারি
তুমি আমায় তাওফিক দিও।