ঈপ্সিত
তুমি কি কোন কবিতা?
নাকি ছন্দে বাধা কোন গান?
সুরের ঝংকার মনের অলঙ্কার
নিয়তিরই ব্যবধান।
ঈপ্সিত
তুমি কি কোন মায়াবী হাতছানি?
যা অবলীলায় টানে
অমৃত আহবানে।
নাকি কোন উত্তাল কোন স্রোতস্বিনী।
ইপ্সিতা
তুমি কি কোন ঝলমলে প্রদীপ?
নাকি কোন আলোকিত প্রভাত?
বিধাতার সৃষ্টিতে--
তুমি কি (চন্দ্রমা) চাঁদ?
ইপ্সিতা
তুমি কি প্রেম?
নাকি রহস্যের ফ্রেম?
মানবীর আড়ালে--
তুমি কি কোন ছলনা?
নাকি অস্পৃশ্য কোন উৎপল?
অন্তহীন সীমানা?
ইপ্সিতা
তুমি যদি গান হও
আমি হবো সে গানের সুর।
যদি কোন কবিতা হও
সে কবিতার চরনে চরনে বাজাবো ঘুঙ্গুর।
ইপ্সিতা
তুমি যদি মায়াবী হাতছানি হও
আমি হবো তার আবেশ।
যদি হও কোন উন্মত্ত স্রোতস্বিনী,
আমি হবো তার শ্লেষ।
ইপ্সিতা
তুমি যদি হও আলো
অথবা কোন আলোকিত প্রভাত।
আমি হবো সেই প্রভাতের সূর্য--
বিদীর্ণ করব তিমির রাত।
ইপ্সিতা
তুমি যদি প্রেম হও
আমি হবো প্রেম পূজারী কবিতা।
যদি কোন ফ্রেম হও
আমি হবো তার ছবি।
যদি কোন অস্পৃশ্য উৎপল হও
আমি হবো তার স্নিগ্ধতা।
যদি নিঃসীম কোন প্রান্ত হও
রেখো আমায় (অন্তত) শেষ সীমানায়।
সারাটি জীবন কাটিয়ে দেব
তোমারই আরাধনায়।