ইট পাথরের বন্দি শহর আর বিষাক্ত নদীর পানি ভাল লাগে না। মন ছুটে যায় পল্লী গাঁয়ে যেথায় জড়িয়ে আছে আমার কৈশোর আর কৈশোরের স্মৃতি। তাই বিষয়বস্তুর সাথে মিল রেখে রচিত হল এই ছড়া কবিতা।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২ জানুয়ারী ১৯৮৬
গল্প/কবিতা: ৩৫টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - কৈশোর (সেপ্টেম্বর ২০১৯)

কৈশোরী ফুল
কৈশোর

সংখ্যা

মোট ভোট

এস জামান হুসাইন

comment ১১  favorite ১  import_contacts ১৯২
ইট পাথরের বন্দি শহর,
বিষ মিশানো স্রোতের নহর,
মন টিকে না সেথায়।
ডাকছে আমায়, পল্লী মায়ায়
শিউলি লতায়, শিমের ছায়ায়
ফড়িং উড়ে যেথায়।

গাছে- গাছে, পাতায়- পাতায়,
আম- কাঁঠালের, জামের শাখায়,
কিশোর মনের খেলা।
সকাল- দুপুর- বিকাল- সাঁঝে
খালে- বিলে নদীর মাঝে
শাপলা- শালুক মেলা।

নাটাই হাতে ইচ্ছে ঘুড়ি
পাতাল হতে আকাশ ফুড়ি
লুকোচুরি খেলা।
লাটিম ঘুরায় মনের দুখে
দিনের শেষে মলিন মুখে
অভিমানী বেলা।

হাডুডু- গোল্লাছুট মাঠে
গাঁয়ের বধু নদীর ঘাটে
স্মৃতির জলে ভাসে।
সাত রঙ্গা রোদ- বৃষ্টি দেখে
পায়েশ কোমল শিশির মেখে
কৈশোরী মন হাসে।

ঘুম ভাঙ্গানো কিশোর প্রভাত
পল্লী মায়ের দুধ মাখা ভাত
লেগে আছে ঠোঁটে।
ছুটির ঘন্টার মায়ার জালে
লাল সবুজের রক্ত জলে
কৈশোরী ফুল ফোটে।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement