দেশের প্রতি আমার ঋন

ঋণ সংখ্যা

মোঃআসাদুজ্জামান লিংকন
  • ১৫
ইন্টেলিজেন্স সোর্সগুলা খবর পেয়েছে, বর্ডারের কাছে শত্রুর কিছু আনাগোনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তাই,একটা বিশেষ স্পেশাল অপারেশন এর দায়িত্ব দিয়ে আমাদের যেতে বলা হয়েছে এই এলাকায়। শুধু আমরা না । আরো কয়েকটা গ্রুপ একই ভাবে বিভিন্ন এলাকা থেকে ভিন্ন রাস্তায় একই ধরনের অপারেশন এ বের হয়েছে। কিন্তু আমাদের টা একটু আলাদা। একটু বিপদসংকুল ও।
ভয় পাই না আমি। বরং একটু থ্রিলিং লাগে আমার। এটাই তো আমার কাজ, এর জন্যেই তো গায়ে ইউনিফর্ম লাগিয়েছে ও। দেশের জন্যে কাজ করার মধ্যে একটা আনন্দ আছে। অনেক মানুষ আছে যারা শুধু মুখেই বুলি আওড়ায়। নিজের হাতে দেশের পতাকা
রক্ষার কাজ করা। এর থেকে গর্বের ব্যাপার আর কিই বা আছে বলো।
নদীকেও একই কথা বলেছি আমি। নদী!আমার স্ত্রী। মাত্র কয়েকমাস হলো,বিয়ে হয়েছে আমাদের। পরিচয় অনেক দিনের হলেও আমার স্ত্রী আমাকে নতুন করেছে চিনেছে বিয়ের সাত দিনের মাথায়। সেদিন সকালে আমি ওকে বললাম তোমার
সাথে আমার সেদিন পরিচয়। আর ইউনিফর্ম এর সাথে যেদিন পরিচয় হয়েছিল, সেদিন কসম কেটেছিলাম,
জলে স্থলে অন্তরীক্ষে যেখানেই যাওয়ার আদেশ করা হবে, সেখানেই যাবো। সবার উপরে আমার দেশ, আমার
ইউনিফর্ম, তারপরে তুমি, এখন তুমি কষ্ট পেলেও আমার যেতে হবে। এটাই আমার সামরিক জীবন। মেনে নিতে
পারলে ভালো থাকবা, না পারলে কষ্ট পাবা। চয়েজ ইজ ইয়োরস, ডার্লিং। " এরপরে আমি ভেবেছিলাম, নদী হয়তো কষ্ট
পেয়েছে। কিন্তু আমি জানি না ও কতটা খুশি হয়েছিলো, জীবনে সব চেয়ে বড় সিদ্ধান্ত নিতে সে ভুল
করেনি জানতে পেরে। গর্বে বুকটা ভরে উঠেছিল সেদিন তার, এমন একটা মানুষের সহধর্মিণী হতে পেরে।হটাৎ মৃদু বাতাস এসে
গায়ে হিমেল পরশ বুলিয়ে গেলো। বিকেল হয়ে এসেছে, রোদের তেজ ও কমে এসেছে। থামতে হবে কোন জায়গায় আমাদের।
রাতের বেলায় মুভমেন্ট না করাই শ্রেয়। আশে পাশে পানির ঝর্না কই পাওয়া যাবে। সেখানেই থামবো আমরা।আমাদের একটু বিশ্রাম
দরকার।
ভোরে আবার রওনা হতে হবে। জানি সামনের রাস্তা
টা আরো
বন্ধুর হবে। তাতে কি। ইউনিফর্ম পরে
থাকলে কিছুই গায়ে লাগে না। এরই
নাম জীবন আমার কাছে।আমার এই পথ চলাতেই
আনন্দ....
হটাৎ টানা এলএমজি গান ফায়ারের
আওয়াজ-----------------------
একটা বুলেট বিদ্ধ করল আমাকে বুকের ঠিক মাঝখানটাতে।
আমি ঢলে পড়লাম মাটিতে।
প্রিয় দেশ রক্ত দিয়ে হলেও তোমার ঋন শোধ করা যাবে না। যতবার শত্রু আসবে আমি রুখে দাড়াবো।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
মামুনুর রশীদ ভূঁইয়া বেশ ছোট গল্পটি.. ভালো লাগল
খন্দকার আনিসুর রহমান জ্যোতি প্রিয় দেশ রক্ত দিয়ে হলেও তোমার ঋন শোধ করা যাবে না। যতবার শত্রু আসবে আমি রুখে দাড়াবো।...// এখানে আমি=দেশ প্রেমের প্রতিক মনে হয়েছে আর আমার ধারনা ঠিক হলে লেখক সফল হয়েছে। তবে আর একটু যত্ন নিলে আবশ্যই লিংকন ভাইয়ের হাত থেকে আরো ভালো কিছু হবে আশা করা যায়। শুভ কামনা রইলো। আর লিংকন আপনাকে বিশেষ ভাবে ধন্যবাদ দেব দেশপ্রেম নিয়ে লিখার জন্য।
রুহুল আমীন রাজু বেশ লাগলো ... শুভেচ্ছা নিরন্তর । আমার পাতায় আমন্ত্রণ ।

০১ জুন - ২০১৭ গল্প/কবিতা: ২ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

বিজ্ঞপ্তি

“নভেম্বর ২০২১” সংখ্যার জন্য গল্প/কবিতা প্রদানের সময় শেষ। আপনাদের পাঠানো গল্প/কবিতা গুলো রিভিউ হচ্ছে। ১ নভেম্বর, ২০২১ থেকে গল্প/কবিতা গুলো ভোটের জন্য উন্মুক্ত করা হবে এবং আগামি সংখ্যার বিষয় জানিয়ে দেয়া হবে।

প্রতিযোগিতার নিয়মাবলী