নষ্ট নীড়ের খোঁজে একটা ভাঙ্গা হৃদয়
একটা জ্বলন্ত সিগারেট, এলোমেলো চুল,
মদের বোতল, লাল টুকটুকে চোখ
জরিনা, সখিনা কিংবা ঝিলমিল
করেছে যে ভয়ানক প্রেমের খেলা
করেছিলো কি কখনো ভয়?
শুধু ভেবেছিলো লীলাখেলায় মত্ত মোরা
কিসে এত ভয় !

কাঁচের বোতলে; রক্তাত হাতে,
কেটে লিখেছিলো নাম প্রেম - স্মরনিতে,
ভেবেছে কি কখনো রক্ত পড়ে হবে শেষ।
ছিলো কি তার প্রানের মায়া,
যে হয়ে যাবে নিঃশেষ।
শুধু ভেবেছে তাকে সারাক্ষণ,
পাবে সে নিশ্চয়ই - আর বলেছে
কিসে এত ভয়।

পতিতালয়ে হাজার হাজার নর- নারী
বদ্ধ ঘরে কিংবা অন্ধকারে,
লাজ লজ্জার লেশ নেই।
শুধুমাত্র খানিক যৌনতৃপ্তি ,
বিনিময়ে কয়েক শ টাকা
এর বেশি কিছু নয়- তারপরো .
করেছিলো কি কখনো ভয়?
শুধু ভেবেছিলো ক্ষুধা নিবারনে মত্ত মোরা;
কিসে এত ভয়!

তরুণ যুবক কিংবা হিংস্র পুরুষ
দিনের পর দিন যৌনকর্মে লিপ্ত,
কাজের মেয়ে,স্কুল ছাত্রী কিংবা
ছোট সেই অবুঝ শিশুটিও,
রেহাই নেই ....
যৌন নেশায় বিভোর বখাটেরা
করেছিলো কি কখনো ভয়?
শুধু ভেবেছিলো যৌন ক্ষুধায় মত্ত মোরা
কিসে এত ভয়!