অতোখানি কাঁদি আমি শ্রাবণে
ভালবাসা পাঠ তুমি করো ততদিন,
হিসেবে বহর দেখে সহসা
অতোখানি তুলে দিও পড়ে থাকা ঋণ।

অতোখানি ঘ্রাণ দিও মেখে
দুরত্ব ফিরাই প্রতিদিন
দ্রাঘিমা মেপে প্রতিপাদ টানি,
ছোবল কিংবা অনাচারি সুহৃদ সুবাস
ভরে দিও সামিয়ানা বসন্ত উৎসবে।
সেখানেও পাবে জেনো সহাস্য দ্রবণ।

তোমার চরণে লুটায় অতোখানি সুর
তার চেয়েও ভালবসো বিনম্র অন্দর,
জাহাজের ভীড় চেয়ে দেখো কতো
নোঙরের ঘায়ে বিলিন সমূহ বন্দর।

তারপর অতোটুকু ঘুম ফেলে
দখিনা বাতাসে চলে কুন্তলে চাষ
যদিও বয়সে ভাঁজ ফেলে অনাদর ঘাম,
তবুও এখনও তেমনি আছো
তেমনি রয়েছে অতোখানি দাম।