কবিতাটির মূল বিষয় হচ্ছে অন্ধকারে যেভাবে পাখিরা ডাকে তেমনি অন্ধকারে আমাদের স্মৃতির পাখিরা ডেকে উঠে। স্মৃতির পাখিরা অন্ধকারে যেনো জীবন ফিরে পায়। এদিকে থেকে । ‘আঁধার’ বিষযটির সাথে কবিতাটি সামঞ্জস্যপূর্ণ।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৮ নভেম্বর ১৯৯৫
গল্প/কবিতা: ২টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - আঁধার (সেপ্টেম্বর ২০১৮)

স্মৃতির ডাহুক
আঁধার

সংখ্যা

মোট ভোট

উজ্জ্বল সায়েম

comment ১৭  favorite ১  import_contacts ৯৬৩

ঘুমিয়ে গেলো পৃথিবী নিমিষেই
আমি আর অন্ধকার রইলাম জেগে
তরুণ রাতের বক্ষ চিড়ে
হঠাৎ ডেকে উঠলো
স্মৃতির ডাহুক।
এক দ্ইু তিন অগণিত
নানা রঙের ডাহুক
কোনোটা মৃৎপ্রায়, কোনোটা তরুণ
গলিত, অর্ধগলিত ডাহুক
স্মৃতির ডাহুক।

এরা ডাকে, মুধুই ডাকে
রাত হলেই ডাকে
কারণে অকারণে ডাকে।

তরুণ রাতের বয়স বাড়ে
একটা বয়স পর্যন্ত
রাত যেনো থমকে দাড়ায়।
তারপর ডাকতে থাকে ডাহুক
নানা রঙের ডাহুক
স্মৃতির ডাহুক।

গভীর রাতে
স্মৃতিরা যৌবন ফিরে পায়
ক্ষুধার্ত স্মৃতিরা অন্ধকার খায়
অন্ধকার স্মৃতির প্রান।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement