আমি জন্মান্ধ নই
শত শতাব্দী আগে এসেছি তোমার সাথে;
ভাল থাকা ভালবাসার জন্য,
বারুদের গন্ধ বুকে নিয়ে রক্তাক্ত আজ;
এ আমার উত্তরাধিকার।
যুগ-যুগান্তরে আমাকেই হতে হয়েছে
জানুয়ারদের ক্ষুধা মেটাবার একমাত্র বস্তু।
দেখনি? তোমার প্রিয় গোলাপী ঠোঁটে কলঙ্কের দাগ;
গ্রীবার প্রতিভাঁজে হায়েনার লালা,
লুটেরার হিংস্র থাবায় লন্ড-ভন্ড রসোত্তীর্ন যৌবন।
মন্দ হতোনা অনুভূতিহীন হলে
সভ্যতার অপদৃষ্টি আর ক্রমবিবর্তনে,
ঊষা আর গোধূলীর পার্থক্যটা হারিয়েছি চিরতরে।
বেঁচে থাকায় জীবন নয়; জীবনের জন্য হাসি
হাসির জন্য লৌকিকতা।
সিদ্ধান্তহীন অসুস্থ বিবেক আজ
অস্থিত্ব খুঁজে সভ্যতার দ্বারে।
দুঃশাসন-দুরাচারে তলিয়েছে সব
হঠাৎ জেগে উঠি ধুসর স্বপ্নে।
আশায় বুক বাঁধিনা আর; সীমাহীন কষ্ট শুধু
আমি জন্মান্ধ নই-
তোমাদের কি কিছুই করার নেই?
আমি দেখতে চাই,
ভালবেসে বুকে জড়িয়ে ধরতে চাই।
আমায় আলো দাও-আলো দাও
আলো দাও ;
ভালথাকতে দাও
ভালবাসতে দাও।