ফুলে ফুলে

কষ্ট সংখ্যা

শরীফ মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান
  • ৩৪৭

ফুল ফোটাতে গিয়েছি আমি সবার নিকুঞ্জে
আচমকা পিছনে ধেয়ে চেয়ে দেখি
শূন্য মোর নিকুঞ্জ।

হায় ! নিজের বনানী খালি রেখে অবোধ আমি
পরের বাগানের তরে অবলীলায় আজীবন
শুধু বেগার খেটেছি।

প্রস্ফুটিত হয়নি কোনো চেনা অথবা অচেনা ফুল
কী করে ফুটবে ,কীভাবে গজাবে নতুন কুঁড়ি
কেউ যে বোঝেনি আমায়।

ম্লান বদনে নেত্রদ্বয় মুছে ফিরলাম আবার
তোমার বনানীতে,ভেবেছিলাম পারবো –আমি ই পারবো
ফোটাতে ফুল, কিন্তু না আবার হল ভুল।

নির্বাক হয়ে আঁখি খুলে চাহিলাম গগনে
শুনিলাম পিছন থেকে কে যেন কহে মোরে
ওরে ও ব্যর্থ কবি,ওরে ও অভাগা ফিরে যা তুই।

আবার শুরু থেকে শুরু কর রে কবি
ভরে তোল আগে নিজের নিকুঞ্জ
ফুলে ফুলে।

তবেই পারবি তুই ফুল ফোটাতে সবার তরে।

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
ফয়জুল মহী । মাধুর্যমণ্ডিত লেখা।

লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

কোনো এক কবির সৃজনশীলতা নিয়ে অতৃপ্ত হৃদয়ের কষ্ট প্রকাশিত হয়েছে কবিতায়।

২২ জানুয়ারী - ২০১৭ গল্প/কবিতা: ১ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

আগামী সংখ্যার বিষয়

গল্পের বিষয় "উষ্ণতা”
কবিতার বিষয় "উষ্ণতা”
লেখা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৫ ডিসেম্বর,২০২১