নদীর এই পার আমার বাড়ি
ঐ পার বন্ধু তোমার,
ভালোবেসে হয়েছিলাম
দুজন দুজনার।
নদীর পারে প্রতিদিনই
থাকতাম আমি বসে,
মন জুরানো এ প্রেম কভূ
হয়না যেন মিচে।
ছিল আমার একটি নৌকা
কর্মে আমি মাঝি,
তোমার ভালোবাসার টানে
রসিক আমি সাঝি।
মাঝে মাঝে তোমায় নিয়ে
ঘুরতাম নদীর প্রাণে,
বলতে তুমি পাশে বসে
ভূলোনা আমারে।
বলতাম আমি তোমায় বন্ধু
কি করেযে ভূলি,
পারতাম যদি দেখিয়ে দিতাম
অামার হৃদয় খুলি।
হঠাৎ একদিন নদীর পারে
হলো যখন দেখা,
বললে তুমি যাবে দূরে
অামায় করে একা।
দু দিন পরে তোমার নাকি
হয়ে যাবে বিয়ে,
অন্য একজন যাবে তোমায়
দূরে কোথাও নিয়ে।
বললে তুমি নয়ন ভরে
দেখ শেষ বার,
হয়ত আমার পাবেনা দেখা
এই জগতে আর।
বুকটা আমার ভেসে গেল
দু নয়নের জলে,
কেমন করে থাকবে দূরে
আমায় একা করে।
সেযে তুমি চলে গেলে
দিলানা আর দেখা,
আমায় নিঃশ করে বুঝি
সুখি হলে একা।
যেথায় থাকো বন্ধু তুমি
থাকো অনেক সুখে,
দুঃখ যেন না ছোয় তোমায়
পার্থনা মোর বুকে।।।