(১)
শোন হে প্রভূ, তোমার চরণে
রাখি মোর শির, বিনীত স্মরণে,
দিয়েছ জন্ম, দয়াময় মোরে
ধরণীর ফুল - বাংলার ঘরে।

(২)
আমার গাঁয়ের চারিধার ঘুরে
মধুমতি নাঁচে বছর জুড়ে,
জেলে নৌকার পাটাতন, খোলে
রূপালী ইলিশ ঝিলিক তোলে।

(৩)
কাঁচা সোনা রং, মাগো তোর গায়ে
স্বর্গের সুখ, বটের ছায়ে,
ছড়ানো ছিটানো কত সম্ভার
ক্ষেতভরা ধান, শস্য বাহার।

(৪)
ছয়টি ঋতুর বারোটি মাসে
মধুমালা তোর ঘুরেফিরে আসে,
কত ফল-মুল, কতশত নাম
আমড়া, কাঁঠাল, আমলকি, আম।

(৫)
জুঁই, চামেলী, চম্পা, বকুল
সাঁজিয়ে ডালা, বর্ণালী ফুল,
তোর কাছে মা জন্মের ঋণ
ঠাঁই দিস বুকে, শেষ হলে দিন।

(৬)
আমার গাঁয়ের কথা আছে যত
অভিধানে ভাষা কুলাবে না তত,
হও যদি তুমি আমার সাথী
বুঝে নিও তবে এ' প্রানের আকুতি।