এসেছে নতুন দিন, নতুন সময়, সদা প্রযুক্তির প্রযোগ,
ফেসবুক,ইন্টারনেট আর মোবাইলে যোগাযোগ।
প্রথম আলাপ হয়েছিল অচেনা সে কল,
তবুও সে বোঝেনি, কথা বলেছে অনর্গল।
ভেবেছে সে পরিচিত, যাকে লাগে যে ভালো,
আলাপন আলোচনা মনের গহীনে গেল।
দিন যায়, দিন আসে, রাত হয় ভোর,
কথা হয় চুপি চুপি, জানে না সে সত্যি খবর।
এভাবে এগোয় দিন, কথা হয় বেশ,
মনে মনে বাসা বাধে, ভালো লাগার আবেশ।
এ বার তো দেখা হবে, দিন হয় ঠিক,
দুজনেই কাছাকাছি, চেনেনা সঠিক।
চাতকি নয়ন তার ঘুরে ফিরে চাতুর্দিক,
ছেলেটাও ঘুরে ফিরে এলোমেলো, দিক বিদিক।
সাইলেন মুডে ফোন বাজে বারে বারে,
ফোন ধরা হয় ঠিকই, বাস গেছে ছেড়ে।
চাতোকিতো ফিরে গেল দেখা হলোনা ভেবে,
চাতক তো চিনে নিল চাতকি টাকে।
ছেলেটা সাহস করে বলে দিতে পরিচয়,
সংসয় বাধা দেয়, সাথে হারানোর ভয়।
একদিন ; যাকে ভেবে কথা দেখা হয় তার সাথে,
তার কথা আচরনে মনে ব্যথা লাগে,
একই লোক কি কোরে করে দুরকম আচরন,
সন্দেহ লাগে তাই, নিয়ে নেয় বিবরন।
দেয় একই সাথে দুই ফোনে কল দুই দিকে,
আজ দুজনেই ফোন ধরে, এক জন ফিকে,
ধরা পরে অবশেষে উরো সেই পাখি,
কি করে ভালবাসা আর রয় বাকি?
কেঁদে কেটে বলে সে, এত দিলে তুমি ফাঁকী!
কি করে তোমার প্রতি আর বিশ্বাস রাখি?
সাথে সাথে ফেসবুকে হলো ছবি দেখা,
ছবি দেখে কেটে গেল সংসয় রেখা ।
মুখ দেখে মনে হল মনুষটা ভাল;
ক্ষমা করে অবশেষে মন ভাল হলো ।
আজ ও তারা ভাল আছে হাসি খুশি মন,
অবসরে ভাবে বসে ফেলে আশা ক্ষণ।