এ শহরে তোমার অসংখ্য অবদান।
র্কনি হাতে কত ভিত্তিই গড়েছো তুমি
শীতাতপ সুউচ্চ কাংখিত নির্মাণ
অথচ,
কোথাও পালিত হবে না তোমার জন্ম কিংবা মৃত্যু দিবস
জীর্ণ কুটির ছিন্ন কাঁথায় নীরবে
নিবারণ করে নাও মৃত্যুর সঘন তিয়াস।
রাজ মিস্ত্রি,
তোমার উল্সি, পাট্টা ওলন এখন
শ্রষ্টার হাতে। আশীর্বাদ তোমার প্রতি
যে সভ্যতাকে তুমি ইঞ্চি ইঞ্চি মেপে
উচ্চতা করেছো দান, সে সুরম্য তোরণে না হোক,
তোমার নামের অক্ষর বিন্যাসিত হবে, সোনার জলে
অনন্ত ঠিকানার প্রাসাদ পরে।
কারণ, সভ্যতাকে যা দিয়েছো তুলে,
বিনিময়ে কতটুকু পেয়েছো তুমি?