ফাল্গুনের কোন এক পড়ন্ত বিকেলে,
হাটছিলাম সিটি মহাসড়কের ধারে,
চোখ যাচ্ছিল সরে সরে,
সেই অপ্সরীটির দিকে বারে বারে,
তখন আমাকে টানছিল চুম্বকের বেগে,
যদি সে যেত সেদিন রেগে,
চুরমার হত আমার স্বপ্ন সাথে সাথে,
ক্রন্দনময় দুঃস্মৃতিময় আবেগে,
কিন্তু হলো না তা ভাগ্যবশত,
দেখা করতাম তাই আমরা,
পরবর্তীতে খুবই অবিরত,
তবে ছিল অনেক ক্ষেত্রেই,
আমাদের দুজনের চরম দ্বিমত,
তবুও মেনে নিতাম আমি নীরবে,
প্রতিষ্ঠা করতে নিরপেক্ষ অভিমত,
কিন্তু টিকলনা এই মিষ্টি দুষ্ট সম্পর্ক,
ফাল্গুনের কোকিলের সুরের মতই,
আজ তাই সে শুধুই এক অতিথি চরিত্র,
আমরা এখন একে অপরের চরম শত্রু
সামাজিক,পারিবারিক আর ব্যক্তিগত সম্পর্কগুলোরর মাঝে
আড়াল করে দিলাম সযত্নে তাকে,
ভালবেসেছিলাম অকাতরে যাকে,
অর্থের প্রাচুর্যের কৃত্রিমতাই যে তাকে ধরে রাখে।
এই সম্পর্ক তো চাইনি আমি,
চাইনি এমন ফাল্গুনী প্রেম,
বাগানের সব কৃষ্ণচূড়া ফুলের আড়ালে,
ঢাকা পড়ল সেই চরম স্মৃতিময় ফ্রেম।