আর ঝরে পড়া কৃষ্ণচূড়া শুকনো লাল পাঁপড়ি
স্মৃতির অপকটে ভেসে আসা পুরানো দিন-রাত্রি।

না পাওয়ার মাঝে পাওয়ার আনন্দগুলো যখন খেলা করে,
বেদনাগুলো তখন মুখ লুকিয়ে রাখে
আকাশ-মাটি-গাছ-পাতা-ফুল
চুপটি করে হাসে-
চোখ রাঙিয়ে বলে-ঐ যে দেখ লাল সূর্য
কেমন গণগণে তাপ, ঝলসে যায়
পৃথিবী-চাঁদ-মঙ্গলে...

উষ্ণতা আর কোমল আদর
ঝাপটে ধরার প্রাণ প্রাচুর্য
কোথা থেকে আসে বলো?

সিগ্ধ ভোরের মৃদু বাতাস যখন যায় ছুঁয়ে
দোলাচলে কেঁপে ওঠে সবকিছু, শিহরন লাগে শিরা-উপশিরায়
আবার রোদেলা দুপুর, তাড়িয়ে নিয়ে বেড়ায় ঘুমকে
সুখস্বপ্নের মিষ্টি আবেগে হারিয়ে যাওয়ার।

তোমার হাত ধরে, পড়ন্ত গোধুলী বেলায়
পায়ে তাল মিলিয়ে, সেই চেনা নদীর ধারে
গল্প করতে করতে, মন পবনের ঘুড়ি
পঙ্খিরাজ ঘোড়া ছুটে, রূপকথার রাজ্যে।