অসীমের শূন্যে বা শূন্যের অসীমে
মিল্কিওয়ের প্রতিটি বালুকণায়
বা অখেয়ালের দেয়ালে, খসে যাওয়া রংয়ে
তীরহীন নদীর মোহনায় বা অবহেলার ভাঙা কাঁচের টুকরোয়
বেঁচে থাকুক তোর ঘৃণা
তাচ্ছিল্য ভরা নিঃশ্বাসের রেশ!
বেঁচে থাকুক আজন্মলালিত ভালোবাসার আঁড়ালের কামুক লোভ, তোর ভালোবাসা
তোর চোখ তোর মায়াময়ী কন্ঠস্বর, তার গান!
বেঁচে থাকুক নীল জল-
ঘরের কোণে অবহেলিত মুচড়ানো কয়েক চিঠি ,
ধুলিমাখা ডায়েরীর পাতাগুলির ধুলো, বেঁচে থাকুক
বেঁচে থাকুক বিকেলের রোদ।
পাহাড়ের সবুজ স্বপ্নের সেই ফোস্কা কুঁড়ানো, দৌড়ঝাপ
তোর ঘরের পর্দার ভাজে আটঁকে থাকা কত শত মজার গল্প
হাসা-হাসি দু' এক অশ্লীল কৌতুক।
বেঁচে থাকুক সন্ধ্যার বুক-
জোনাক পোকার পালকের ছোঁয়া বা
তাদের আলোর ভালোবাসা বিলানো শহর।

বেঁচে থাকুক তোর তারার আকাশ, হাজারো তারা ,
তোর হাজারো রূপ
ঘুম ভাঙা রাতের দুঃস্বপ্ন আর
তোর অধরে আমার কোমল স্পর্শ, বেঁচে থাকুক।
বেঁচে থাকুক আমার স্বার্থপরতা আর
তার ফাঁকে তোর স্বার্থকামী কামুকতা।
অসীমের শূন্যে বা শূন্যের অসীমে
মিল্কিওয়ের প্রতিটি বালুকণায়
বা অখেয়ালের ভাঙা কাঁচের টুকরোয়
বেঁচে থাকুক তোর ভালোবাসা, ঘৃণা
তাচ্ছিল্য ভরা নিঃশ্বাসের রেশ, বেঁচে থাকুক --।