হাঁটিতেছি আমি ক্লান্ত পায়ে,
খুঁজিতেছি তারে পথধারে।
এথা নয় ওথা, ওথা নয় সেথা,
হয়তবা কোনোখানে।
দাঁড়ায়ে রহিছে একাকী সে,
অপেক্ষারত আমা লাগি।
কত কাল অতীত, কত সূর্য ডুবিল,
চন্দ্র উঠিল শত।
রাখিনি হিসেব, চলিতেছি আমি
অনাদি-অনন্ত।
দিবালোকে দেখি, নিশীথে হারাই,
কতবার পথ ভুলে যাই।
থেকে থেকে শুনি হাসিতেছে সে,
উপহাস করিছে আমায়।
কখনো বা শুনি কান্নাভেজা কন্ঠে,
ডাকিতেছে আমায় বারংবার।
তবু পাই নি কো আমি, পাই নি যে তারে,
বহমান কালে।
শূন্য যে সবই, শূন্য যে হায়,
তারে কোথা পাই?