বাবলুর মোবাইল প্রাপ্তি

অস্থিরতা সংখ্যা

মারুফ হায়দার
ছেলেটার বয়স ১৪-১৫ বছর হবে। জনি যখনই এই হোটেলটাতে খেতে যায় ছেলে পাশে এসে দাঁড়ায়।খুব আগ্রহের সাথে জনির মোবাইল দেখতে থাকে।জনি খাবারের অর্ডার দেয়। বাবলু দ্রুত খাবার দেয় টেবিলে।
মোবাইলটা পকেটে রেখে খাবার খেতে বসে জনি।জনি যতক্ষন থাকবে সারাক্ষণ জনির টেবিলের কাছে ঘোরাঘুরি করে।
এভাবে বেশ কয়েকমাস হতে চলল।জনির কাছ থেকে বাবলু অনেক কিছু শিখেছে। মাঝেমধ্যে গেমস খেলতে দেয় জনি।
বাবলুর খুব শখ জাগে একটা মোবাইল কেনার।কিন্তু অভাবের সংসার আর কয় টাকায়বা বেতন পায়?
বাবলুর প্রতি জনির কেমন যেন একটা মায়া পড়ে গেছে।বিশেষ করে তার অতিথিপরায়ণতা।
ভাবছে বড়ভাইয়া যদি মোবাইল পাঠায় তবে এইটা বাবলুকে দিয়ে দেব।
বাবলুকে মোবাইল দেবার কথা জানায় বাবলু। বিনিময় কিছুই দিতে হবে না।
প্রথমে রাজি হয়না, পরে বুঝিয়ে বলার পরে নিতে রাজি হয়।
বাবলু! আমার ভাই বিদেশে থাকে, তাকে বলব একটা নতুন মোবাইল পাঠাতে। ভাইয়া মোবাইল পাঠালে এই পুরনোটা তোকে দিয়ে দেব,কেমন?
২.
বেশ কয়েকদিন হলো জনি হোটেলে আর আসে না।এদিকে বাবলুর খুব মন খারাপ হতে থাকে।দিন যেন যেতে চায় না।সবসময় ভাবতে থাকে জনি ভাইয়া মোবাইল দিতে চেয়েছিল।
মনে হয় দেবে না। এতটাকা দামের মোবাইল কেনইবা দেবে আমায়?
আজ বাবলুর অন্যরকম লাগছে, ভাবতে ভাবতে অশ্রু বের হয়ে আসে।নিজেকে খুব বোকা ভাবতে থাকে।কেনইবা মিথ্যে আশা বেধেছিল বুকে?

অবশেষে ভাইয়ার পাঠানো মোবাইলটা হাতে পায় জনি।
খুব পছন্দ হয় নতুন মোবাইলটা।ভাবতে থাকে পুরনো মোবাইলটা বাবলুকে দিয়ে দেবে।
বয়সে অনেক ছোট বাবলু।কেনার সামর্থ্য নেই বেচারার।এটা দিলে খুব খুশি হবে।
বিকেলে জনি হোটেলে উদ্দেশ্য করে রওনা দেয়।জনিকে দেখেই দুরথেকে দোড়ে কাছে আসে বাবলু। জনি হাসি মুখে মোবাইলটা বাবলুর বুকপকেটে গুজে দেয়।
বুকে হাত দিয়ে মোবাইলটা ধরে।জনিকে জড়িয়ে ধরে বাবলু।খুশিতে কেদে ফেলে, চোখ ঝাপসা হয়ে আসে।আপনাআপনি দু ফোটা জল গড়িয়ে পড়ে। এদিক ওদিক তাকায় কেও দেখে নেওয়ার আগেই হাত দিয় মুছে ফেলে...
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
আল মামুন দারুণ গল্প । চালিয়ে যান, ভালো লাগলো । ভালবাসা রইলো কবির জন্য । আমার লেখা পড়ে দেখবার আমন্ত্রণ জানাচ্ছি ।
ভালো লাগেনি ১৯ জানুয়ারী, ২০২১
রুহুল আমীন রাজু অনেক ভালো লাগলো...ধন্যবাদ. আমার পাতায় আমন্ত্রণ রইলো .
ভালো লাগেনি ১২ জানুয়ারী, ২০২১
মারুফ হায়দার অবশ্যই রাজু ভাই ধন্যবাদ
ভালো লাগেনি ১২ জানুয়ারী, ২০২১
রেজওয়ানা আলী তনিমা ভাল লেগেছে,শুভেচ্ছা রইল।
ভালো লাগেনি ১২ জানুয়ারী, ২০২১
মারুফ হায়দার আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।কষ্ট করে পড়ার জন্য। দোয়া রাখবেন
ভালো লাগেনি ১২ জানুয়ারী, ২০২১
মোহাম্মদ সানাউল্লাহ্ বাহ্ ! মাত্র কয়েকটা বাক্যে যে এত সুন্দর গল্প সাজানো যায়, আপনার এই দারুন গল্পটা না পড়লে বুঝতেই পারতাম না ! খুব ভাল লাগল তাই ভোট রেখে গেলাম ।
ভালো লাগেনি ১০ জানুয়ারী, ২০২১
মারুফ হায়দার স্যার আপনাকে ধন্যবাদ যে আমার গল্পটা পড়েছেন, আসলে আমি ভাল লিখতে পারি না, তবে চেষ্টা করি লেখার ।দোয়া রাখবেন
ভালো লাগেনি ১২ জানুয়ারী, ২০২১
ফয়েজ উল্লাহ রবি খুব ভাল লেগেছে,শুভেচ্ছা রইল।আর ভোট রেখে গেলাম।
ভালো লাগেনি ১ জানুয়ারী, ২০২১
মারুফ হায়দার ভাই শুভেচ্ছা রইল। ধন্যবাদ কষ্ট করে পড়ার জন্য...
ভালো লাগেনি ১২ জানুয়ারী, ২০২১
গোবিন্দ বীন ভাল লাগল,ভোট রেখে গেলাম।পাতায় আমন্ত্রন রইল।
মারুফ হায়দার অবশ্যই ভাই, দোয়া করবেন
ভালো লাগেনি ১২ জানুয়ারী, ২০২১

২৫ মে - ২০১৫ গল্প/কবিতা: ১ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

আগামী সংখ্যার বিষয়

গল্পের বিষয় "ভয়”
কবিতার বিষয় "আঁধার”
লেখা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৫ আগষ্ট,২০২১