আমি এখানে মৃত্তিকা সনে দাড়িয়ে , শরীরে লাগিয়ে বাও- বাতাস , উথাল পাতাল মন ভালবাসায় । আরেকজন বলল আরে এত অতি মানব এসো একে পুজো দিই । আমি বলি আমি তোমাদেরি মত মানুষ , পার্থিব - জড় জগতের অবিচ্ছেদ্য অংশ । আমিও আহারি , নিদ্রা যাই এবং একদিন মিলিয়ে যাব জগত মাঝারে , এটাই চরম পার্থিব সত্য । পার্থিবতায় দৃশ্যমান সবই সত্য । নেই কোন অতিমানব , অতীন্দ্রিয় কোন সত্ত্বা । যা কিছু গল্প বানিয়ে তোমায় বশ করা হয় তাই অপার্থিব , অগ্রহনযোগ্য ।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৮
গল্প/কবিতা: ৫৭টি

সমন্বিত স্কোর

৩.৬৪

বিচারক স্কোরঃ ২.২৯ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৩৫ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - পার্থিব (আগস্ট ২০১৮)

দীপ্তমান পার্থিবতা
পার্থিব

সংখ্যা

মোট ভোট ১৮ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৩.৬৪

শাহ আজিজ

comment ৯  favorite ০  import_contacts ১৬২
আমার জীবনে অপার্থিব বলে কিছু ছিলনা
যা দৃশ্যমান একষট্টিটি বসন্তে তার সবটাই পার্থিব
আমার জননী আর জনকের ভালবাসায় আমি দীপ্তবান
আমি নই যীশুর মত ঈশ্বর পুত্র , নই নই বীর্যবিহীন
এক গায়েবী জলজপত্রে উন্মোচিত গগন মাঝারে ।
আমি মিথ্যার আশ্রয়ে করিনা বসবাস অপার্থিব কুঠরিতে
যেথায় পেঁচাগুলো বড্ড কঠিন সত্য হয়ে দেদীপ্যমান
করতলে বক শালিখের হাক ডাক টিয়াদের পাকুড় খাওয়া
নদীতে ভাসমান ডিঙ্গা অভিমানে ভোগে মৎস্যহীন বিচরনে
নিশি গগন মাঝে শশী করে পূর্ণ যৌবনময় পার্থিব সময়ে

সবচে অপার্থিব বিষয়াবলীই কিন্তু তীব্র পার্থিবতায় উজ্জ্বল
সৃজিয়াছেন তোমায় যিনি , করবে অস্বীকার ? দুঃসাহসী বটে!
তবে করো অস্বীকার তীব্র ঝাঁঝালো ম্যাগনেটিক ফিল্ড
ম্যানটেল কোরের তীব্র আকর্ষণ আর আকাশগঙ্গার নিশিদিন খেলা
তাহলে তুমিই অপার্থিব একখণ্ড মেরুদণ্ডহীন ধুমকেতু
চৌম্বকত্বের তীব্র দহনে দলছুট ঘরবাড়ী – সংসার বিহীন
কি করুনা তোমায় , বেচে থেকেও করো মৃতের ভান ।
আমি যা কিছু ছুঁয়ে দেই , দেখি দুনয়ন ভরে তাই হয়ে ওঠে পার্থিব
আমার কাঠামোর ভেতরে অদ্ভুত বিদ্যুতের সমাহার
টের পাই রাতের পর রাত জেগে থাকে পরমেশ্বরের সন্ধানে ।।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement