মায়ের হাতে মৃত্যু

বৈরিতা সংখ্যা

সোহানুজ্জামান মেহরান
  • ২০
  • ১৮
শোনরে তার, কদিন আগে মা দুনিয়াকে দেয় ছুটি।
সকাল দুপুর খেতো না খানা রাত্রে খেতো এক রুটি।
মায় যদি আনতে বলে কিছু, রেগে যেতো বাবা।
বেধম মারা মারতো মাকে চড় ঘুসি লাথি থাবা।

কোন জিনিস কিনে বাবা আনতো না যে বাড়ি।
লুঙ্গি বানিয়ে পরাতো মোদের, ছিঁড়ে মায়ের শাড়ি।
শত যন্ত্রণার এই পাহাড় ভেঙে মা যে গেল মরে,
কিছু দিন পর নতুন মাকে আনলো বাবা ঘরে।

আমরা, মা বলে ডাকলে মাকে করতো শুধু রাগ,
রাতে শুইতে গেলে বলতো বিছানা থেকে ভাগ।
আমরা দুই ভাই শীতে কাঁপি করেনি তবু আদর,
দেয়নি গায়ে শীতের জাম্পার মায়ের ছেঁড়া চাঁদর।

বছর দেড়েক পরে মায়ের কোলে আরেক ভাই এলো।
আমাদের পাতে দেয় না ভাত, দেয় যে দুরে ঠেলে।
দাদু, দাদু, মা আমাদের খালি বিনা দোষে মারে,
আমাদের মারলে তুই কিছু বলিসনে কেন তরে?

দাদু বলে, পুড়া কপাল নিয়ে বল যাব কার কাছে,
তোর বাবা মা তো আমারেও মারতে পারলে বাঁচে।
হঠাৎ ঘুম থেকে জেগে দেখি ভাই নেই বিছানাতে,
ছোট ভাইকে হয়তো মেরে ফেলেছে মা সেই রাতে।

কোথায় ভাইকে রেখেছে মা পাইনি ভাইয়ের খোঁজ,
ভাইয়ের কথা বললে মা কে, মারে আমায় রোজ।
হয়তো শিয়াল কুকুর খেয়েছে পাইনি ভাইয়ের খবর,
নয়তো, এক হাত মাটি চাপাই হয়েছে ভাইয়ের কবর।

শুনলি আকাশ শুনলি তারা আমার জীবনের ঠিকানা,
মায়ের মত আসবো আমি, আমার জায়গা দিবি কিনা?
শুধু আমার বাবা মা নয়, পৃথিবীও আজ আমার বৈরি,
ভাইয়ের সাথে মায়ের কাছে যেতে আমিও আছি তৈরি।

(ঘটনা অনুসারে রচিত)
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
কবিরুল ইসলাম কঙ্ক ভালো লাগলো ।
সোহানুজ্জামান মেহরান ধন্যবাদ দাদা।ভালো থাকুন সর্বদা।
হুমায়ূন কবির আপনার কবাতাটি হৃদয়ে আঘাত করেছে। ভোট দিলাম, আমার গল্পে চোখ দিবেন।
সোহানুজ্জামান মেহরান ধন্যবাদ কবির ভাইয়া। অবশ্যই পড়বো।
তাপস এস তপু ভালো লাগল। ভোট রেখে গেলাম।
সোহানুজ্জামান মেহরান ধন্যবাদ তপু ভাইয়া। ভালো থাকুন সর্বদা।
এশরার লতিফ সৎ মা'র হৃদয় বিদীর্ণ করা বৈরিতা, ভীষণ মর্মস্পর্শী. শুভকামনা রইলো.
সোহানুজ্জামান মেহরান ধন্যবাদ সুন্দর মন্তব্য করার জন্য।ভালো থাকুন সর্বদা।
শামীম খান ছন্দ মিলে কাহিনীর বর্ণনা । আমার কাছে ভাল লেগেছে । শুভ কামনা আর ভোট রইল ।
সোহানুজ্জামান মেহরান আপনার কাছে ভালো লেগেছে যেনে খুবই খুশি হলাম।ধন্যবাদ ভাইয়া।
তুহেল আহমেদ সরলতায় ভরপুর একটি লিখা । গাম্ভির্য্যতার ঘাটতি হলেও থিমটা সুন্দর । আশাবাদ রইলো ।
সোহানুজ্জামান মেহরান ধন্যবাদ দাদা, ভালো থাকুন সর্বদা।
সৈয়দ আহমেদ হাবিব সুন্দর / অন্তমিল কিছু কিছু ছুটে গেছে..........
আকলিমা আক্তার খুব সুন্দর হয়েছে। শুভ কামনা রইল। ভোট আরেকবার দিব। ৫ মিনিট পর পর দিতে হয় তো।
সোহানুজ্জামান মেহরান অনেক ধন্যবাদ আপু।শুস্থ থাকুন সর্বদা।

৩১ মার্চ - ২০১৫ গল্প/কবিতা: ১ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

বিজ্ঞপ্তি

“ডিসেম্বর ২০২১” সংখ্যার জন্য গল্প/কবিতা প্রদানের সময় শেষ। আপনাদের পাঠানো গল্প/কবিতা গুলো রিভিউ হচ্ছে। ১ ডিসেম্বর, ২০২১ থেকে গল্প/কবিতা গুলো ভোটের জন্য উন্মুক্ত করা হবে এবং আগামি সংখ্যার বিষয় জানিয়ে দেয়া হবে।

প্রতিযোগিতার নিয়মাবলী