আমার মত এমন ছেলে কতটা আছে জানিনে ,
সকাল হলেই সূর্য উটে সবাই জানে গগনে ।
নিল দিগন্ত পারি দিতে চাই থেকে আমি ভভূনে ,
খাওয়া-নাওয়া সব ছেড়ে যে ,
ব্যস্ত থাকে যে আবিস্কারের কাজে ,
বলোন সে কি ঘরে থাকতে পারে ?


তাই তো চোটে বনের দারে
বসে কোনো নদীর পারে ,
ভাবে, কি করে যায় পাখি উড়ে ,
মানুষ কি ত়া করতে পারে ?


এমন আপন ভুলা ছেলে ,
পড়াশোনায় অবহেলে ,
উটছে কোনো গাছের ডালে ,
নৌকায় উটে দু পা দুলে ,
দেখছে পাখি গাছের ডালে ,
পাল উড়িয়ে নৌকায় বসে ,
কঠিন কঠিন অংক কসে ,
সে কি কিছু করতে জানে ?

সময় কাটে যার রংধনু দেখে ,
সে কি করে কবিতা লেখে ,
এই কথা যায় লোকে বলে
সে তো আপনভোলা ছেলে

ছেলে শুধু নদীর তীরে,
চেয়ে কোনো দিগন্ত পানে ,
মুগ্ধ হয় সে পাখির গানে ,
সে কি পড়া শিখতে জানে ?

এমন ছেলে বলে কি না !
দিগন্ত নাকি তার টিকানা ,
দিগন্তর এই বসুধা তে
নেবে নাকি আমায় সাথে ।
আমায় নিয়ে অনেক দুরে ,
আসবে নাকি জগত ঘুরে ,
যেতে আমি করলে নারাজ ,
করবে নাকি সে বড্ড আরি ,
আমায় নিয়ে ঘুরবে দেশে ,
দেবে নাকি দিগন্ত পারি ।