বিরহের তিন তারা

উপলব্ধি সংখ্যা

জিন্নাত আরা ইফা
  • ৩০
  • ৩০
শিউলি ঝরা রাতে যখন তোমার সাথে আমার প্রথম দেখা
তখন মনে হয়েছিলো শিউলি ফুলগুলো বোধহয়,
সেই রাতে ঝরতে অস্বীকৃতি জানিয়ে ছিলো ।
ওরা যেনো শুধু শুরুভী ছড়াতেই ব্যস্ত ছিলো
তোমার আমার মন প্রাণ ভরাতেই বুঝি ওরা আর ঝরতে চাইতো না ।
এভাবে কত রাত যে কেটে গেলো.. বুঝতেই পারিনি ।
যখন তুমি আমার পাশে থাকতে না তখন আমি
উঠোনের কোণজুড়ে ভরে থাকা নির্মল হলুদ ঝিংগে ফুল গুলোর সাথে
তোমায় নিয়ে কত যে গল্প করতাম..........
ওরা যেনো আমার গল্প শুনে আনন্দে নেচে উঠতো ।
চাঁদনী রাতে আকাশ যখন তারায় তারায় পূর্ন থাকতো,
তুমি আমার কানে কানে বলতে,আকাশের দিকে তাকিয়ে দেখো-
তুমি আর আমি একই আকাশের নীচে ।
আর আমাদের এক হয়ে থাকার প্রমাণ হিসেবে থাকবে
আকাশে উঠা এক’ই সারির তিনটি তারা ।
আমরা যতই দুরে থাকি না কেন এই তিনটি তারার দিকে
তাকালে মনে হবে - আমরা এক সাথে পাশাপাশি আছি ।
আমাদের আত্বা এক,
শুধু দেহটাই ভিন্ন ।
তুমি যার আলোয় আলোকিত হতে চেয়ে চাঁদের আলো চাওনি
তার জীবনেই তুমি আঁধার ঢেলে চলে গেলে ।
এতো কিছুর পরও তোমার প্রতি আমার কোনো অভিযোগ নেই
নেই অভিমানও ।
তোমায় কতটা ভালোবেসে ছিলাম-তুমি তা কখনো’ই বুঝতে পারোনি
জানি, আজো বুঝতে পারবে না ।
কিন্তুু, আজ তোমাকে বলতে চাই-
তোমায় ভালোবেসে ছিলাম বলেই সেদিন আমি আমাকে
এক অদৃশ্য নিয়তির কাছে বিসর্জন দিয়ে ছিলাম ।
যেনো তুমি সুখে থাকতে পারো ভালো থাকতে পারো।
কারন, তোমার সুখেই যে আমার সুখ ।
তারপরও আমি বলবো,আজো তোমায় ভালোবাসি কিনা জানি না
শুধু এটুকু বলতে চাই-জীবনের যে কোনো প্রান্তে এসে
যেদিন তুমি হ্নদয় দিয়ে আমাকে তোমার কাছে ডাকবে
সেদিন’ই তুমি আমাকে তোমার কাছে পাবে ।
জানো, আজো যখন আকাশে তাকিয়ে সেই তিন তারা দেখতে পাই
তখন চোখ আপনা আপনি’ই বন্ধ হয়ে যায় ।
মনে হয় তুমি আমার পাশে এক আত্বা হয়ে মিশে আছো ।
যখন’ই চোখ খুলে তোমায় ছুঁতে চাই-
তখন’ই তুমি যেনো অমাবশ্যার চাঁদ হয়ে যাও ।
এখনো এই তিন তারা তোমার দেয়া মধুর বিরহের
স্বাক্ষ্য বহন করে যাচ্ছে, রাতের পর রাত......
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
কেতকী মণ্ডল একেপেশে ভালোবাসার কবিতায় ভোট রইল।
নজিব রায়হান ভালো লেগেছে।
রেজওয়ানা আলী তনিমা বেশ আবেগী কবিতা। শুভকামনা রইল আগামীর জন্য।
জহির শাহ মেঘের আড়ালে যেমন সূর্য হাসে , হাসির আড়ালেও তেমন মেঘ ভাসে . কবিতা ও কবি সম্পর্কে কবি রাজু ভাই চমত্কার উক্তি করেছেন .আমি শুধু বলবো- এই কবিতার কাহিনীর সাথে অনেক অনেক জীবনের মিল পাওয়া যাবে.জীবন ভিত্তিক লেখার জন্য কবিকে ধন্যবাদ.সামনের মমতা সংখায় একটি দারুন মমতার লেখা চাই.
ছাইদুর নাইম রহুল আমিন রাজু ভাইয়ের মন্তব্য'এর সাথে আমিও সম্পূর্ণ একমত...... আসলেই মিষ্টি হাসি থেকে বিরহের লেখা......সত্যি অসাধারণ...!! কবির জন্য শুভ কামনা রইলো.সামনে এমন আরো ভালো লেখা আশা করছি.
পুস্পিতা আখি কবিতাটি পড়ে কিছুক্ষণের জন্য থমকে যেতে হযেছিল....গল্পটা অনেক অংশ আমার জীবনের সাথে মিশে গিয়েছিল তো ...তাই. আসলে আমরা মনে হয় বেশিরভাগ ভুল মানুষকে ভালবাসি......
আবিদ হাসান মিয়া কষ্ট ও যে শিল্প হতে পারে ...তা আপনার কবিতায় দেখিয়ে দিলেন .আপনাকে ধন্যবাদ.
Helal Al-din অসাধারণ কবিতা, বেশ ভালো লাগলো.
অপর্ণা রায় রহুল আমিন রাজু ভাইয়ের কথা দিয়ে শুরু করি- আপনার ভুবন জয়ী হাসির ভেতর এতো কষ্টের কবিতা.....সত্যি জবাব নেই. আপনার লেখার হাত অসাধারণ !! রজনীগন্ধার শুভেচ্ছা রইলো.

২৩ নভেম্বর - ২০১৪ গল্প/কবিতা: ১ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

আগামী সংখ্যার বিষয়

গল্পের বিষয় "উষ্ণতা”
কবিতার বিষয় "উষ্ণতা”
লেখা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৫ ডিসেম্বর,২০২১