মা,মাগো,কেমন করে কাটে তোমার দিবানীশি
তোমার ওই পাগলছানা,
তোমায় না দেখলে যার মন ভরে না,
তোমায় না ভাবলে যার নীশি কাটেনা,
প্রতিবারি তোমার অশ্রুসিক্ত নয়ণ দেখে ফিরে আসি।

মা,মাগো,কত ব্যাথা তুমি সহে যাও নিভ্রিতে
তোমার ওই পাগল ছেলে
তোমায় সবুর করতে বলে,
তোমার ছেলে বোঝে,তুমি লুকাও সবি আনন্দের ছলে,
সবার মতো তোমায় সুখি না দেখে,তোমার ছেলে পারেনা সহিতে।

মা,মাগো,যে তোমারে দিয়াছে এতো ব্যাথা
তোমার এই অভিমানি ছেলে,
কত স্বপ্ন তার তোমাকে নিয়ে,
তোমার মুখে কিভাবে হাসি ফোটাবে,
তোমায় স্বর্গীয় করে রচে যায় কত কথা।

মা,মাগো,বলো কি হবে এ যাতনার বিনিময়
তোমার ছেলের উন্মাদনা,
তোমায় সুখি করতে তার সাধনা,
বেদনাভরা তোমার স্মৃতির রুড়তা,
ভুলানো যাবে কি মা,তোমার ছেলে যদি হয় বিশ্বময়?।