ডাস্টবিন দেখে নাকে রুমাল চাপো?
কিন্তু দেখো ওখানে মুখ গুঁজে সুঘ্রাণ খুঁজছে কিছু অভুক্ত চোখ! ক’দিন খায়নি ওরা বলোতো? তোমাদের টেবিলের উচ্ছিষ্ট খাবারগুলোর মূল্যমান জানো? জানো ক্ষুধা নামক দানবের গল্প?

তোমাদের প্রাসাদগুলোর দরজা বছরে একদিনের জন্য খুলে দাও, মাইকিং করে সারা শহর জাগ্রত করো! মহান হবার এর চেয়ে ভালো পথ আছে কোথাও?
ঠিকই ওরা শিরোনাম হয়ে যায় খবরের পাতায়
পদদলিত হয়ে কতোজন যেনো মরে যায়!
এ লজ্জাটুকু কার?

আজকাল তোমাদের পাঁচমিনিটের সুখের ফসলগুলো ও কিন্তু ড্রেন, ঝোপঝাড়, ডাস্টবিন কাঁপায়! জেগে উঠে রাস্তার কুকুর যে কিনা বস্তা ছিঁড়ে বের করে তোমাদের পাপ!
মিডিয়া আসে- পুলিশ আসে, নিঃসন্তান দম্পতিরা
ভিড় করে আদালত পাড়ায়!
রাস্তার কুকুরগুলোর ও নিশ্চয়ই উচ্চমাত্রার বোধ আছে, যেখানে তোমাদের বোধগুলো হেরে যায় প্রতিদিন!
এ লজ্জাটুকু কার?

ওদিকে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারীটিও মা হয়
ধরণী কাঁপে তার চিৎকারে,
তোমাদের নির্মমতায় - তোমাদের পাপের গ্লানিতে
মলিন হয় সূর্যের রঙ! কালো মেঘে ঢেকে যায় চাঁদ!
এ লজ্জাটুকু কার?

স্বয়ং ঈশ্বর’ই হয়তো লজ্জিত তাঁর শ্রেষ্ঠ জীবের নির্লজ্জতায়!