অসীম দিগন্তে দাঁড়িয়ে তোমার হাত দুখানি বাড়িয়ে,
ডাক দিলে মোরে ছুটে এসো যাই প্রকৃতিতে হারিয়ে।
হাতে হাত রেখে নিরন্তর ছুটে যাব সীমাহীন প্রান্তে,
কোথায় হবে এ অদূর পথের শেষ তা জানতে।
বনে বনে পাখি গাইবে গান পুষ্পিত হবে অসংখ্য ফুল,
যে মোহনায় মিশেছে নদী খুঁজে বেড়াই সে অজানা কূল।
রংধনুর সাত রঙ ছুঁয়ে রাঙাব এ দুটি জীবন,
মধুর হয়ে উঠে যেন পথচলার প্রতিটি ক্ষণ।
রাতের মায়ায় সাঁঝের তারায় আকাশে আঁকব ছবি,
থাকবে তার মাঝে ফেলে আসা দিনগুলির সুখ দুঃখ সবি।
নিভে যায় যদি লক্ষ তারা আঁধার ঘনিয়ে আসে,
ছাড়ব না দুটি হাত শুধু থেকো আমার পাশে।
মনে হয় যেন এইতো ছোব অসীম দিগন্তের ধূলি,
ভোরের শিশিরের ন্যয় হারিয়ে যায় যখন চোখ খুলি।
হয়তো এ জন্মে হবে না অসীম দিগন্ত দেখা,
রয়ে যাবে শুধু পথচলার বিবর্ন ধুলির রেখা।