মনে হয় একদিন সোনালি সকাল দেখিব না আর,
পাখির কলতান ভ্রমরের গান রয়ে যাবে একাকার।
ফিরে পাব না বাউলের সুরে মনমুগ্ধ করা গান।
প্রকৃতির মাঝে হারিয়ে যাওয়া সিগ্ধ মাটির টান।

নদীর বুকে ঢেউয়ের তালে ভাসিয়ে নৌকার ভেলা,
দেখিব না আর সবুজের বুকে কাশবনের মেলা।
নীল আকাশে দেখিব না আর মেঘের ছোটাছুটি,
ক্ষনিকের তরে সেজে উঠা প্রকৃতির নতুন এক সৃষ্টি।

একাকী পথে দেখিব না আর পথিকের পথচলা,
রাতের মাঝে হারিয়ে যাওয়া মিটিমিটি তারা জ্বলা।
গৌধুলীর আলোয় রাঙাবে না মন প্রকৃতির নীরবতায়,
পুষ্পিত হবে না সেই পুষ্প জীবনের সজীবতায়।

কতদিন বসে গল্প করেছি বটবৃক্ষের ছায়ায়,
দেখিব না আর কদমের ডালে পেঁচা গান গেয়ে যায়।
জোনাকির আলোয় জ্বলবে না আর মনের প্রদীপগুলো,
আঁধারের তরে হারিয়ে যাবে স্মৃতিময় দিনগুলো।

নীরব এ প্রকৃতিতে শুনিব না আর ঝিঁ ঝিঁ পোকার ডাক,
হাসি কান্না চেয়ে রবে থেমে যাবে মুখের বাক।
মনে হয় একদিন মুছে যাবে জীবনের অধ্যায়,
কালের গর্ভে বিলীন হবে খুঁজে পাওয়া তা দায়।